Bangla Breakup Sms – বাংলা বিরহের মেসেজ

প্রেম আমাদের জীবনে একটা অনিবার্য বিষয়, বাঙালী মানেই মিষ্টি ভালোবাসে, একইরকম ভাবে কৈশোরের মধ্যাহ্নে প্রেম আসবেই, স্কুল ফেরত পথে, বা কোনো কোচিং ক্লাসের নোটসের আড়ালে; সে যেভাবেই হোক, প্রেম আপনার জীবনে পদার্পন করবেই। তবে কি, এখন আমরা এই একবিংশ শতাব্দীতে বসে, যেরম ভাবে খুশি, যখন খুশি একটা বোতাম টিপে তৈরী বিরিয়ানি কোনোরকম কষ্ট না করে অপেক্ষা না করে সাথে সাথে পেয়ে যাচ্ছি, তেমন ভাবনা নিয়েই আমরা প্রেমের দিকে এগোই। প্রেম যেন ইনস্ট্যান্ট নুডুল, জলে  দিয়ে দু’ মিনিট- ব্যাস আপনার রসনা তৈরী। প্রেম টাও আমরা সেই ইনস্ট্যান্ট ভাবেই চাই। আজকে দেখবো আর কালই আমাদের একটা গল্প লেখার মত প্রেম হয়ে যাবে।  এরম তো হয়না, আপনার মস্তিষ্ক, মন, স্বত্বা যে আটা নুডুলের থেকেও বেশি সুক্ষ। অনেক সুক্ষ জিনিস এরা বোঝে খেয়াল করে, আর সেই অনুপাতে আপনার ভাবনা চিন্তা অনুভূতি গুলিকে হেলিয়ে দুলিয়ে গড়ে তোলে। এখন এমন জটিল মনের কোনে যদি আপনি মাইক্রোওয়েভ পিৎজা গোঁজার চেষ্টা করেন, বিপ্লব যে হতে বাধ্য।  এম এফ হুসেনকে দিয়ে কি আর, রাস্তা মাপার দাগ কাটানো যায় বলুন। তেমন ই এই ইনস্ট্যান্ট প্রজন্ম প্রেমের ক্ষেত্রে বাজে রকমের ধ্যারায় আর কি। ৩ মাসের প্রেমের ৩০০ বার ব্রেকআপ।  সেই ব্রেকআপ  স্থায়ী না হয়ে মিটমাট হয়ে গেলে তো এক রকম,  যেগুলো হচ্ছেনা মিট মাট, যেগুলো  স্থায়ী ভাবে মুখ দেখা দেখি বন্ধ, সেগুলো কেমন যেন হয়ে যায়। কিন্তু কি জানেন এই পৃথিবীতে কোনো প্রেম হারিয়ে যায় না, বৃষ্টির বিকেল হয়ে যায়।  ঝরে পরে সুন্দর শহর টার ওপর। আর সেই বৃষ্টির বিকেল, বৃষ্টি স্নাত  শহরের জন্য রইল কিছু কথা।

Bangla Breakup Sms – বাংলা বিরহের মেসেজ

প্রেমে এস এম এসের যে একটা অন্যরকমের অসম্ভব গুরত্বপূর্ন ভূমিকা আছে তা আমাদের আর বলে দিতে হবেনা, গত এক দশকের প্রায় সব কটা প্রেমই এস এম এস এই জন্ম নিয়েছে বেড়ে উঠেছে কোনো কোনোটা সফল হয়েছে কোনো কোনোটা থেকে গেছে বৃষ্টি দিন হয়ে, নিজের মধ্যেকার শেষ না হওয়া সবুজ গল্প টা দিয়ে আরো সবুজ আরো সজীব করে তুলেছে শহর টাকে। আর সেই শেষ না হওয়া গল্প গুলোই কিন্তু কোথাও গিয়ে, পরিপাটি হয়- সুন্দর হয়। আর সেই ভগ্ন হৃদয় মানুষ গুলোই কবিতা লেখে, কখনো কখনো হয়ে ওঠে অনুপ্রেরণা।আমাদের জীবনকে আরো সুন্দর করে তোলে তাদের ওপর শান্ত স্বত্বা তা দিয়ে। আর সেই ভগ্ন হৃদয়ের জন্যই রইল এই মেসেজ (কষ্টের sms) গুলি। কে বলতে পারে এর মধ্যেই একটা হয়তো আপনার আশাহীন গল্প তাকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার পথ দেখাতে পারে।

1. শেষের দিকে সবাই সবার ভালো চায়।  

যেখানেই থাকো সুখে থাকো এই আমি শুধু চাই,  এই শুভ রাতে এই কামনাতে আমি যে তাই গান গাই।

প্রেমে বাধা পেলে অনেক মানুষই বেশ একটা সিনেমার  ছিরি ছাঁদে নিজেকে ফেলে দেয়।  আর তখনই তার মধ্যে জটরকম সম্ভৱ ওপর দুঃখ, সিনিসিজম, আয়রনি ভরে ওঠে।  তাদের কথা গুলো হঠাৎ করেই খানিকটা দিলীপ কুমারের ডায়লগের মত শোনায়। আর তখনই এনারা খোঁজেন কিছু ভালোবাসার sms, যা তারা তাদের সোশ্যাল মিডিয়া গুলোয় শেয়ার করবে।  কতকটা মনের ভাব বোঝাবেন আর কতকটা সেই মানুষটাকে জানাবেন যে সত্যি কষ্টে আছেন তাকে ছাড়া। এই রইল সেই  দেবদাসেদের জন্য।

2. মনের কোনে থাকে যে জন। 

চোখের জলে ভাসিয়ে দিলাম মনের ঠিকানা, খেয়াল স্রোতে চাইলে তুমি অন্য মোহনা।

তবু তোমার সুখে ব্যাথার জোয়ার এ বুকে ডাকবো, শুধু তোমারি থাকবো আমি তোমারি থাকবো।

কখনো কখনো এমন হয়, যে কোনো মানুষ একটি সম্পর্ক থেকে বেরিয়ে এসেছেন।হয়তো বাধ্য হয়ে হয়তো নিজের ইচ্ছায় বা অনিচ্ছায়, যাই হোক; বেরিয়ে আসার পরও তাঁর সেই  একই রকম আছে, তার প্রতি যে অনুভূতি গুলো ছিল তার পরিবর্তন হয়নি, এবং হয়তো কোনোদিনই হবেনা, এটা জানার পরও  যে তাঁরা একসাথে থাকতে পারবেননা। এই কষ্টের এসএমএস টি তাদের জন্যই।

3. মন নিয়ে খেলা। 

যাকে নিয়ে করলে খেলা, দিলে এই অবহেলা, দেবে সেই  চাঁদের আলো ভরালে সন্ধ্যাবেলা,

যদি কার হৃদয় ভাঙে লিখো প্রেম আমার নাম এ, আমি আজ বিদায় জানালাম।

এমন অনেক ক্ষেত্রেই হয় যে প্রেমে আছে যারা তাদের মধ্যে হয়তো একজন সত্যিই প্রেমে ছিলেন তার সত্যিই সেই অন্য মানুষটির প্রতি অনুভূতি গুলো ছিল সত্যি আর গভীর। কিন্তু অন্য মানুষটির ভাবনা চিন্তা ঠিক এক রকম ছিলোনা, হয়তো তিনি একই ভাবে সেই সম্পর্কে তিনি ছিলেন না, তার ভাবনা চিন্তা ছিল একেবারেই আলাদা, অনুভূতিও। এই সমস্ত সত্যি সামনে আসার পরে, প্রেমে থাকা মানুষটির মনে হতেই পারে যে তিনি প্রতারিত হয়েছেন। তার সবথেকে কাছের সবথেকে সুন্দর অনুভুতিটা একেবারেই ভুল ভাবে ব্যবহৃত হয়েছে। তাদের জন্য রয়েছে এই ভালোবাসার এসএমএস গুলি। 

4. দিনের শেষে একটাই গলার আওয়াজ। 

জানো এখন আর রাতে ফোন করে কেউ বলে না যে যায় ঘুমাও সকালে ক্লাস এ যেতে হবে।

সম্পর্কে থাকা কালীন আমাদের কিছু অভ্যাস হয়ে যায়। ছোটো ছোটো অভ্যাস, যা আমাদের জীবনের অনেক পুরোনো অভ্যাস বদলে দেয় , আর কখন আমরা সেই সমস্ত নতুন জিনিসের সাথে অভ্যস্ত হয়ে উঠি বুঝতেই পারিনা।  তা আমাদের চোখে পরে তখন যখন ইটা বদলে যায়।  বা এই জিনিস গুলো আমাদের সাথে হয়না।  সকালে ঘুম থেকে ডাকার মত একটা ভীষণ সাধারণ ব্যাপার যখন সেটা আমাদের প্রিয় কেউ করে তা আমাদের খুব কাছের একটা ব্যাপার হয়ে ওঠে; আর যখন সেটা হয়না আর বন্ধ হয়ে যায় তখন আমরা বুঝতে পারি ওই সাধারণ জিনিসটাও মানুষটার জন্য কতটা অসাধারন হয়ে উঠেছিল। সেই সমস্ত ভগ্নহৃদয় মানুষগুলির জন্য এই বাংলা লাভ sms .

5. দিনের শেষে ঘুমের দেশে তোমায় আমি পাই। 

সারাদিন হয়তো তোমায় ভুলে থাকতে পারি, কিন্তু রাত যে কিছুতেই তোমায় ভুলতে দেয় না, সারাদিনের ব্যস্ততা শেষে যখন নিজেকে সময় দেই, তখনই তোমার কণ্ঠ স্বর শুনতে পাই ।

সঙ্গীহীন হলে যদি আমরা কাজের মধ্যে থাকতে পারি, আমাদের মস্তিস্ক যদি কোনো কাজে ব্যস্ত  থাকে,আমাদের মাথায় তখন সেই প্রিয় মানুষটির অনুপস্থিতি টা খুব বিশেষ সামনে আসেনা, আমরা ঠিক বোধ করতে পারিনা তাদের না থাকা তা কারন তখন আমাদের হাতে সময় থাকেনা। আমরা কাজে ব্যস্ত থাকি তার মধ্যেই থাকি। কিন্তু সারাদিন বাদে নিজের জায়গায় ফিরে এসে যখন আমরা এক হই, একেবারে নিজের সাথে, একেবারে একা তখন আমরা তার অনুপস্থিতিত তা সবথেকে ভালো করে বুঝতে পারি। আর তখনই একটা অদ্ভুত মন্দ লাগে ভরে যায় মনটা। আর সেই মন খারাপের সন্ধ্যে টুকুর জন্যে এই  বাংলা ভালোবাসার এস এম এস।

6. মানুষ বা সময় ভুল হতে পারে, ভালোবাসা ভুল হয়না। 

হয়তো ভুল করে আমরা, ভুল মানুষকে ভালোবেসে ফেলি। কিন্তু ভুল করে ভুলতে পারি না। কারণ মানুষটা ভুল হলেও ভালোবাসাটা তো ভুল ছিলো না।

এটা আমরা অনেক ক্ষেত্রেই শুনেছি যে মানুষ বা সময় ভুল হতে পারে,  কিন্তু প্রেম কখনো ভুল হয়না। অনুভূতির ঠিক ভুল হয়না তার শুধু অস্তিত্ব হয়। সেই অস্তিত্বকে প্রাধান্য দিয়ে আমরা তাকে আমাদের জীবনের একটা অঙ্গ করে তুলছি কিনা আমাদের জীবনের সৌন্দর্যায়নের জন্য তা নির্ভর করে আমাদের ওপর। এটা আমাদের ওপরেই নির্ভর করে যে সেই মানুষ টা কেমন,আদৌ তাকে আমরা বুঝতে পেরে তার গহীন গভীর স্বত্বাকে বুঝতে পেরে তার সমস্তটা নিয়ে আমরা আমাদের জীবনের একটা অংশ করে তুলছি কিনা। পারি বা না পারি। আমাদের যে অনুভূতি তা কখনোই মিথ্যে হয়ে যায় না. আমরা এই অনুভূতিকে সঠিক ভাবে লালন পালন করতে পারি  কিনা, রাখতে পারি কিনা সেটা একেবারেই আলাদা  বিষয়.তার জন্য আমাদের অনুভূতি তা কখনো মিথ্যে হয়ে যায়না। আর সেই অনুভূতির জন্যই বাংলা ভালোবাসার মেসেজ রইল এখানে।

7. আকাশ ডাকে বাতাস ডাকে। 

বাতাসের মাঝে তোমার স্পর্শ পাই, মনে হয় আজো তুমি আমারই আছো । এখনও আমার বিশ্বাস করতে কষ্ট হয়, তুমি আমায় ছেড়ে চলে গেছো।

প্রেমের মধ্যে এমন কিছু থাকে যা আমাদের জীবনের রঙ টাই পালটে দেয়। সকাল গুলো অনেক বেশি সোনালী লাগে, দুপুর গুলো অনেক বেশি শান্ত লাগে, রোম্যান্টিক লাগে, বিকেল বেলা গুলো আরো সুন্দর আরো বাতাসে ভরপুর লাগে, সন্ধ্যে গুলোয় যেন কেউ সুর ভরে দেয় রঙ ভরে দেয়। আর সেই সুন্দর সময়টার জন্য বাংলা ভালোবাসার মেসেজ গুলি রইল আপনার জন্য।

8. চাঁদের গায়ে চাঁদ লেগেছে। 

চাঁদের বিশালতা মানুষের মাঝেও আছে, চাঁদ এক জীবনে বারবার ফিরে আসে, ঠিক তেমন মানুষ প্রিয় বা অপ্রিয় যাই হোক, একবার চলে গেলে আবার  আসে।

চাঁদের সঙ্গে প্রেমের একটা ওপর সম্পর্ক আছে শুরুর সমস্যা থেকেই কবি হোক বা লেখক প্রেম কে চাঁদের সঙ্গে কখনো না কখনো করেছেনই। চাঁদের সাথে প্রেম বা প্রেমিকা কে তুলনা করার অন্যতম প্রধান কারণ হল চাঁদের গায়ে দাগ আছে, মানুষ কখনো একেবারে পারফেক্ট হয়না, খুঁতহীন হয়না। তার জন্যই প্রেমিক হয়তো তার ভালোবাসার মানুষটিকে দেখতে পায় রাতের আকাশের সবথেকে উজ্জ্বল তারকাটিতে।

9. বর্তমান ও অতীতে গুলিয়ে ফেলনা। 

ভালোবাসতাম, প্রচন্ড ভালোবাসতাম  আজ ও আমার কাছে অতীত।

ভালোবাসার মধ্যে এমন একটা অনুভূতি আছে যা আপনাকে বিশ্বাস করতে পারে যে আপনার কাছের মানুষটি ই আপনার জীবনের কেন্দ্র, আপনার প্রাণ ভোমরা। আর সম্পর্ক এমন একটা জিনিস যেখানে কে কখন কোথায় কিভাবে আপনাকে ছেড়ে চলে যাবে তা কেউ বলতে পারেনা, আর তাই সেই ভালোবাসা কখন বর্তমান থাকবে কখন বদলে যাবে কেউ জানেনা।

10. অভিমান ভালো। 

অভিমান বড্ডো খারাপ একটা জিনিস, কিছু বলাও যায় না, আবার সহ্য ও করা যায় না, কিন্তু ভিতর তাকে কুরে কুরে খায়, আর শুধু নীরবে কাদায় 

আমাদের পাশে যে মানুষ গুলি থাকে, যারা আমাদের ভালোবেসে-আদরে জড়িয়ে থাকে তাদের আমরা সারাজীবন আমাদের সাথে চাই।  আমাদের সাথে থাকার জন্য তাদের, তাদের নিজের জীবনে  কতটা মানিয়ে নিতে হয় তা আমরা অনেক সময় দেখতে পাইনা। তাই মাঝে মাঝে তাদের থেকে দুরে যাওয়া প্রয়োজনীয় হয়।  যাতে আমরা তাদের প্রয়োজন তা বুঝতে পারি আমাদের জীবনে।

শেষ কথা 

আমাদের প্রেম আমাদের ব্রেকআপ আমাদের জীবন সবটাই আমাদের হাতে।  আমরা জীবনের প্রত্যেকটা দিন প্রত্যকটা দিন হিসেবে আমরা বাঁচিনা, আমরা সবসময় তাই চেষ্টা করি যাতে আমাদের ভবিষ্যৎ একেবারে সেফ থাকে, সেখানে কোনো আঁচ না পড়ে।কিন্তু সেখানে কোথাও না কোথাও আমাদের বর্তমান টা হারিয়ে যায়।  এইটা মাথায় রাখলেই আমাদের জীবনের আমাদের সম্পর্কের অনেক জটিলতা কেটে যায়।

লেখিকা – পূজা বিশ্বাস 


Comments are closed.