বর্ষবরণের রাতে আড্ডা জমে উঠুক খাস্তা, মুচমুচে চিকেন পকোড়ায়

আগেই বলে নিচ্ছি কেননা আপনারা পরে ভুলে যান। বাকি বন্ধুদের সাহায্যের উদ্দেশে লাইক আর শেয়ারটা  মনে করে করে দেবেন। শুরু করছি আজকের বিষয় –


নমস্কার বন্ধুরা আমি শান্তনু আপনাদের সবাইকে আমার এই chalokolkata.com এ স্বাগতম। আশা করি সবাই আপনারা ভালোই আছেন আর  সুস্থ আছেন। আজ আমি আপনাদের বেশ কিছু চিকেন পকোড়া বানানো শেখাবো যাতে আপনারা দোকানে গিয়ে অনেক টাকা খরচ না করে বাড়িতেই বানিয়ে ফেলতে পারবেন।

বছরের শেষ দিনে বিকেল থেকে একটু আড্ডা হবে না, তা-ও কি হয়! আর বর্ষবরণের আগে আড্ডা মানেই জমিয়ে খাওয়া-দাওয়া। আর বাড়িতে চা-কফির আড্ডাতে সঙ্গে মুখরোচক মুচমুচে কিছু একটা থাকলে কি চলে! আজ সন্ধের চায়ের আড্ডায় বানিয়ে ফেলুন মুচমুচে মুখরোচক চিকেন পকোড়া। এই পদটি বানানো খুবই সহজ আর খেতেও মজাদার। চলুন, জেনে নেওয়া যাক মুখরোচক পদের রেসিপি আর বানানোর কৌশল।

1. চিকেন পকোড়া বানাতে লাগবে

ছোট ছোট টুকরো করে কাটা ২ কেজি বোনলেস চিকেন (সেদ্ধ), ময়দা ও কর্নফ্লাওয়ার ৫-৬ কাপ, আধা কাপ ধনেপাতা কুচি (না দিলেও চলে), এক কাপ কাঁচা লঙ্কা বাটা, ১ চামচ চিনি, স্বাদমতো নুন, ২ চামচ গোলমরিচের গুঁড়ো, ২ চামচ সয়াসস, ৪ কাপ সাদা তেল, ৬টি ডিম।

তেল ছাড়া সব উপকরণ নিয়ে তাতে জল দিয়ে গোলা তৈরি করুন। খেয়াল রাখবেন গোলা যেন খুব পাতলা বা খুব ঘন না হয়ে যায়। এ বার গোলায় ভাল করে ডুবিয়ে চিকেনের টুকরোগুলিকে ডুবো তেলে ভাজুন।

চিকেন সবটা ভাল ভাবে ভাজা হয়ে গেলে টমেটো সস, ধনেপাতা বা পুদিনার চাটনি দিয়ে গরম গরম পরিবেশন করুন মুচমুচে মুখরোচক চিকেন পকোড়া। আড্ডার আসর জমে যাবে।

2. মুচমুচে চিকেন পকোড়া

চিকেন পাকোড়া তৈরি করা খুবই সহজ। ঘরেই তৈরি করতে পারেন চিকেন পকোড়া। আসুন জেনে নেই কীভাবে তৈরি করবেন চিকেন পকোড়া।

উপকরণঃ-

মুরগি আট টুকরা করে একটা, আদা রসুন বাটা এক টেবিল চামচ, ডিম দুটো, জিরা ও ধনে গুঁড়ো এক চা চামচ, কাঁচা লঙ্কা কুচি এক টেবিল চামচ, গরম মশলা গুঁড়ো এক চা চামচ, ধনেপাতা কুচি আধ কাপ, ময়দা ও কর্নফ্লাওয়ার আধ কাপ, নুন স্বাদমতো, সয়া সস ও টমেটো সস দুই টেবিল চামচ, ঘি দুই টেবিল চামচ, পেঁয়াজ কুচি আধ কাপ।
প্রণালীঃ মুরগি আট টুকরা করে কেটে ধুয়ে নিতে হবে। মুরগির মাংসগুলো চালনিতে ঝাড়া দিতে হবে। যেন জল না থাকে। পরে একটি বাটিতে মুরগির মাংস, আদা ও রসুন বাটা ধনে, জিরে, লঙ্কা, নুন, গরম মশলা গুঁড়ো, সয়া সস, টমেটো সস, পেঁয়াজ কুচি, কাঁচালঙ্কা কুচি দিয়ে মাখিয়ে সব শেষে ময়দা ও কর্নফ্লাওয়ার, ডিম, ঘি দিয়ে আবার মাখিয়ে প্রতিটা পিস করে ডুবো তেলে বাদামি করে ভাজতে হবে।

 

 শেষ কথা 

শেষ কথা বলার মতন তেমন কিছুই নেই। শুধু একটাই কথা বলার যে দোকানে গিয়ে না টাকা পয়সা খরচ করে এরকম খাবার বাড়িতে বানিয়ে সপরিবারের সাথে খান। ভালো লাগবে।


1 Comment
  1. Andreas Coleman says

    I can see that your website probably doesn’t have much visits.

    Your posts are interesting, you only need more new readers.
    I know a method that can cause a viral effect on your blog.
    Search in google: Jemensso’s tricks

Comments are closed.