মেষ রাশি – Aries in 2019

আপনি যদি মেষ রাশি হন তাহলে আপনি জেনে নিন আপনার ২০১৯ কেমন যাবে। নমস্কার বন্ধুরা আমি শান্তনু আপনাদের সবাইকে অনেক অনেক ভালোবাসা ও স্বাগতম আমার এই পেজ এ। আশা করবো আমার প্রত্যেক লেখা আপনাদের অনেকটাই উপকার করতে সাহায্য করবে ও আশা করবো ভালো লাগবে আপনাদের। ভালো লাগলে আপনারা সবাইকে শেয়ার করতে ভুলবেন না। আমরা  দেখে নেবো আজকে মেষ রাশি ২০১৯ কেমন যাবে।


ধন উপার্জন হবে অল্প। সঞ্চয়ের পরিমাণ কম হলেও আয়-ব্যয়ের সমতা বজায় থাকবে বলে মনে হয়। আয়ের পরিমাণ কম হলেও ঋণগ্রস্ত হয়ে পড়তে হবে না। যাঁরা চাকরির সঙ্গে যুক্ত আছেন তাঁদের আর্থিক চিন্তায় মাঝে মাঝে ব্যাকুল হতে হবে। ছোট ব্যবসায়ীগণও অনেক সমস্যার সন্মুখীন হবেন। উদরপীড়া, গুহ্যরোগ, শ্লেষ্মাঘটিত ব্যাধি ও নেত্ররোগের জন্য মাঝেমধ্যে কিছু কষ্টভোগ করতে হতে পারে। তবে কোনও গুরুতর রোগ বা শয্যাশায়ী হয়ে থাকতে হবে না বলে মনে হয়। পিতা-মাতার শারীরিক অবস্থা ভাল না-ও থাকতে পারে। তাঁদের স্বাস্থ্যভঙ্গ ও আচরণ বৈষম্যে মন ভারাক্রান্ত থাকবে, ভ্রাতা-ভগিনীদের আচরণে দুঃখিত ও চিন্তিত হওয়া অমূলক নয়। এ বছর তাঁদের সঙ্গে বিচ্ছেদ পর্যন্ত হতে পারে। তাঁদের সঙ্গে সম্পত্তিঘটিত গোলযোগ মামলা-মোকদ্দমাতেও পরিণত হতে পারে। এ বছর পুত্রসন্তান লাভের আশা করা যেতেই পারে। বন্ধুদের মধ্যে বেশির ভাগই আপনার স্বপক্ষে থাকবে। আত্মীয়বর্গের সঙ্গে সত্তার সম্পর্ক স্থায়ী হবে না। পত্নীর আগের কোনও রোগ নিরাময়ের আশায় কিছু অর্থব্যয় অসম্ভব নয়। তবে নতুন করে তাঁর কোনও বড় রোগে ভোগার আশঙ্কা নেই। জরায়ুঘটিত কোনও রোগে অনেক দিন ধরে আক্রান্ত থেকে থাকেন তা হলে ওই রোগের প্রকোপ উত্তরোত্তর বৃদ্ধি পেতে পারে। অন্য দিকে উত্তরাধিকার সূত্রে হোক বা অন্য কোনও উপায়ে হোক, তাঁর ধনসম্পদলাভ (স্থাবর-অস্থাবর সম্পত্তি লাভও) হওয়ার সম্ভাবনা দৃষ্ট হয়। শত্রুর দ্বারা বেশি অনিষ্টের আশঙ্কা নেই। এ রাশির জাতকের এ বছরে উচ্চবর্ণীয় গৌরবর্ণ কোনও ব্যক্তির সহায়তায় অনেক সমস্যার সমাধান ও বিদ্যালাভের পথ সুগম হবে বলে অনুমিত হয়। ধর্মাচরণে প্রবৃত্ত হলে কিছু সুফল পাওয়া সম্ভব। উল্লিখিত সমস্যার প্রতিকার কল্পে প্রতি দিন ইষ্টমন্ত্র বা শিবমন্ত্র জপ কিংবা নবগ্রহ কবচ ধারণ কর্তব্য।

অর্থ: এই বছর অর্থ ভাগ্য খুব ভাল যাবে না। ব্যবসার দিকে অর্থ নিয়ে একটু চিন্তা বাড়বে। ঋণ নিতে হতে পারে গৃহনির্মাণের জন্য। পাওনা টাকা আদায়ে দেরি হতে পারে।

পরিবার: পরিবারে সকলের সঙ্গে সম্পর্ক রাখার ব্যাপারে একটু অশান্তি বাড়তে পারে। আত্মীয়ের সঙ্গে কোনও সম্পত্তির ব্যাপারে বিবাদ বাড়তে পারে। স্ত্রীর সঙ্গে বিবাদ লেগে থাকবে। সন্তান মতের বাইরে কাজ করবে।

সম্পর্ক: এই বছর সম্পর্কে একটু খরচ বাড়তে পারে। বাইরের কোনও সম্পর্ক নিয়ে বিবাদ বৃদ্ধি। স্ত্রীর সঙ্গে কোনও অন্য ব্যক্তির জন্য বিবাদ। পরিবারে সম্পর্ক ঠিক থাকবে না।

 জীবিকা: ব্যবসার দিকে চিন্তা থেকে মুক্তি। চাকরির স্থানে ছোট অশান্তি থেকেই যাবে। খরচ বেশি হওয়ার জন্য সঞ্চয় কম হতে পারে। ব্যবসার দিকে অর্থ যোগান ভাল যাবে না।

মেষ রাশির ব্যক্তিদের চারিত্রিক বৈশিষ্ট্য

রাশি চক্রের প্রথম রাশি মেষ। এই রাশির অধিকর্তা গ্রহ মঙ্গল। এই রাশির ব্যক্তি ছোটবেলা থেকেই তেজস্বী, স্পষ্টবক্তা ও নির্ভীক প্রকৃতির হয়ে থাকে। নানা রকম রোমাঞ্চকর কাজ, সাহসিকতার কাজ করতে পারলে খুব আনন্দিত হয়। গুরুজন ও শ্রদ্ধেয় ব্যক্তিদের প্রতি ভক্তিযুক্ত। কাজ বা কথার সমালোচনা সহ্য করতে পারে না। পরিশ্রমি তবে কায়িক শ্রমের চেয়ে মস্তিষ্কের শ্রমেই বেশি সফল। এরা খুব তোষামোদ প্রিয় ও বন্ধুবৎসল। তবে সকলের সঙ্গে সমান ভাবে মিশতে পারে না। আবেগ প্রকাশ বা নিজেকে বড় করে দেখবার চেষ্টা এদের খুব বেশি। এরা সব বিষয়ে বড় হতে ও নেতৃত্ব করতে হয়। নিজের ক্ষমতায় না হলে পেছনের পথ দিয়ে এগোতেও কুণ্ঠিত হয় না। এদের মতে উন্নতিই আসল, সেখানে পৌঁছনোর পন্থাতা গৌণ। এদের উদ্ভাবনী শক্তি প্রবল। সহজে কথার খেলাপ করে না। নিজের ক্ষতি করেও কথা রাখতে চেষ্টা করে। মন চঞ্চল ও মাঝে মাঝে উগ্র প্রকৃতির হয়ে ওঠে।

            

শুভ রং – লাল

দিক – দক্ষিণ দিক

শুভ সংখ্যা – ৬৪

শুভ রত্ন – লাল প্রবাল



Comments are closed.