দারুচিনির উপকারিতা – Cinnamon Benefits In Bengali

দারচিনি বা দারুচিনি আমরা সবাই চিনি কি তাই তো ? রান্নায় খাবারের স্বাদ এর জন্য এর অনেক কেরামতি। কিন্তু আমরা এই দারচিনিকে শুধুমাত্র রান্নায় স্বাদ আনার এক সৈনিক হিসাবে জানি বা ব্যবহার করে থাকি। আজ আমরা জন্য যে কি এমন গুন্ আছে যা আমাদের সত্যি অনেক উপকার করে।

দারুচিনিকে আমরা রান্নার মশলা হিসেবেই চিনি। নিরামিষ রান্নার কাজে লাগলেও বিশেষ করে যে কোন আমিষ তথা মাংস রান্নায় দারুচিনির গুঁড়ো কিংবা আস্ত দারুচিনি আমরা ব্যবহার করে থাকি কারন এই মশলা খাবারের স্বাদ দ্বিগুণ বাড়িয়ে দেয় । তাছাড়া মিষ্টি জাতীয় কোন খাবার যেমনঃ সেমাই, পায়েশ, হালুয়া, মিষ্টি ইত্যাদি খাবারে দারুচিনি ব্যবহার না করলে কোন স্বাদ কিংবা সুন্দর গন্ধ ফুটে উঠে না। সত্যি কথা বলতে আমরা স্বাদের জন্য খাই কিন্তু আমরা অনেকেই জানি না যে আমাদের দেহেও দারুচিনির অনেক উপকারিতা আছে। চলুন তাহলে জেনে নেই দারুচিনির কিছু আশ্চর্য স্বাস্থ্য উপকারিতা সম্পর্কে।

বাতের ব্যথা দূর করার উপায়

বন্ধুরা সত্যি কথা বলতে দারুচিনিতে আছে ম্যাঙ্গানীজ্যা। অনেকেই জানেন না যে এই ম্যাঙ্গানীজ্যা কি ? ম্যাঙ্গানীজ্যা হল আমাদের শরীরের যে হাড় আছে সেগুলো মজবুত করে আর রক্ত ও দেহের অন্যান্য টিস্যু গঠন করতে অনেক বেশি সাহায্য করে থাকে। যে সকল মানুষের বাতে ব্যথার সমস্যা আছে তারা যদি দারুচিনির তেল বা চা পান করে তাহলে বাতের ব্যথার সমস্যা দূর হওয়ার সম্ভবনা থাকে।

ওজন কমানোর উপায়

 

দারুচিনির এমন এক ক্ষমতা আছে যা আমাদের দেহের রক্ত তরল করতে সাহায্য করে এবং দেহের রক্ত সঞ্চালন বৃদ্ধি করে ও উন্নয়নে সাহায্য করে দেহের ওজন নিয়ন্ত্রনে রাখে। ফলে ওজন বেড়ে ওঠার কোনো চান্স নেই।

ব্লাড সুগার কমানোর উপায়

 

আস্ত দারচিনি যদি আপনি একটু দাঁতে কাটেন তাহলে দেখবেন আপনি একটু মিষ্টি মিষ্টি লাগছে। না ভয় একদম পাবেন না। আপনার সুগার এর কোনো সমস্যা হবে না তার কারণ দারচিনিতে এক আশ্চর্য ঝাঁজালো কিছু প্রক্রিয়া আছে যা আমাদের দেহের ব্লাড সুগার নিয়ন্ত্রনে রাখে। ডায়াবেটিস রোগীদের জন্য দারুচিনি খব উপকারী।

ক্যানসার প্রতিরোধ করে

দারুচিনির নানাবিধ উপাদান আমাদের দেহের গ্যাস্ট্রিক, ক্যানসার, টিউমার এবং মেলানমাস রোগ প্রতিরোধ করে।

পেটের সমস্যা দূর করার উপায়

আপনার পেটে যদি কোন সমস্যা হয়ে থাকে মানে যে কোনো সমস্যা তার জন্য সবচেয়ে সহজ ঘরোয়া সবাধান হল দারুচিনি বা চলতি কোথায় আমরা যাকে  বলি দারচিনি কারন এই মশলা আমাদের দেহে অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল হিসেবে কাজ করে। দারুচিনি চা, দারুচিনি গুঁড়ো, দারুচিনি তেল আমাদের পেটের সমস্যার জন্য খুবই ভালো।

 মাংস পেশীর ব্যথা দূর করে

দারুচিনি তেল দিয়ে দেহের ব্যথাযুক্ত জায়গায় মালিশ করলে কিছুটা আরাম পাওয়া যায় এবং ব্যথাও কমে যায়।

কোলস্টেরল এর মাত্রা কমায়

আপনার শরীরে কোলস্টেরল এর মাত্রা অনেক বেশি ? আপনি এক কাজ করতে পারেন  প্রতিদিন আধা চা চামচ দারুচিনির গুড়ো রক্তে খারাপ কোলস্টেরল এলডিএল LDL এর মাত্রা কমায়। এক চা চামচ এর হাফ চমন দারচিনির গুরু খেয়ে নিন। তারপর জল খেয়ে নিন এক গ্লাস।এটা আবার  ডায়াবেটিসের রোগীদের জন্য খুবই উপকারী।

অ্যান্টি অক্সিডেন্ট 

দারুচিনির প্রয়োজনীয় অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট আমাদের দেহের জন্য অনেক বেশি উপকারী এবং পৃথিবীর সব থেকে ভালো ভালো ৭ টি অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট উপদানই আছে দারুচিনির মধ্যে। আর এই অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট উপাদান গুলো আমাদের দেহের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা উন্নত করতে সাহায্য করে।

মাথা ব্যথা দূর করে

মোবাইল, ল্যাপটপ বা বই পড়তে পড়তে অনেক সময় আমাদের মাথা ব্যাথা করে। আবার কোনো কারণ ছাড়া বা কম ঘুম, ঘুম না হবার জন্য আমাদের মাথা ব্যাথা করতে পারে। একদম চিন্তা করার কারণ নেই। দারুচিনি দিয়ে এক কাপ চা বানিয়ে খান দেখবেন মাথা ব্যথা নিমিষেই দূর হয়ে যাবে।

জয়েন্টের সমস্যায়

বন্ধুরা আমাদের মধ্যে অনেকেই এই সমস্যায় পড়তে পারেন। বা আমাদের বাবা মা দাদু ঠাকুমা তো এই সমস্যা নিয়েই আছেন। জয়েন্টের সমস্যা এখন ঘরে ঘরে। অনেকেই জয়েন্টের সমস্যায় ভুগছেন। তার জন্য দারুচিনিকে জয়েন্টের ব্যথা কমানোর ঔষুধ হিসাবে ব্যবহার করতে পারেন। এবার প্রশ্ন হল কিভাবে ব্যাবহার করবেন ?

উষ্ণ গরম জলের মধ্যে এক চামচ মধু আর দারচিনি গুড়ো ভালভাবে মিশিয়ে নিন, এরপর শরীরের ব্যথা স্থানে আস্তে আস্তে মালিশ করুন। ২-৩ দিন ভালভাবে মালিশ করুন বা এক সপ্তাহ 1 week । কিছুদিন পর দেখবেন ব্যথা কমে যাবে। আর আপনার কাছে একটাই অনুরোধ আমাদের জানাবেন আপনি কেমন আছেন। আমরা অনেক উৎসাহ পাবো।

গলা ব্যথা 

 যে কোনো কারণেই হোক আপনার ঠান্ডা লেগেছে আর সেই ঠাণ্ডায় গলা ব্যথা বা খুশখুশে কাশিতে মধু দিয়ে চা আর চায়ের সাথে দারুচিনি মিশালে আরাম পাওয়া যায়। করে দেখুন আজি।

ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধির উপায়

ত্বকের ঔজ্জ্বল্যতা বৃদ্ধিতে দারুচিনি, দূর্বাঘাস ও হলুদ সমপরিমানে বেটে মিশিয়ে ত্বকে লাগালে ভালো। তৈলাক্ত ত্বকে ব্রন রোধ করতে দারুচিনি উপকারী।

দাঁতের যন্ত্রণা ঘরোয়া চিকিৎসা

দাঁতের যন্ত্রণাএখন ঘরে ঘরে। বিশেষ করে একটু যাদের বয়স হয়েছে মানে ওই ৪০ এর ওপর থেকেই শুরু হয়ে যায় এই দাঁতের যন্ত্রণার তান্ডব। তাই ছোট্ট করে বলতে গেলে দাঁতের যন্ত্রণায় দারুচিনির গুঁড়ো ঐ দাঁতের গোড়ায় টিপে লাগিয়ে দিলে যন্ত্রণা খুব তাড়াতাড়ি উপকার হয়। অথবা ৩/৪ গ্রাম দারুচিনি গুঁড়ো আধকাপ গরমজলে  খানিকক্ষণ ভিজিয়ে রেখে সেটাকে ছেকে নিয়ে, সেই জল মুখে পুরে ৫/৭ মিনিট রাখার পর ফেলে দিলে ভাল ফল পাওয়া যায়।

শেষ কথা 

আজকের আলোচনায় রয়েছে এক অসামান্য নিদারুন দারচিনির বা দারুচিনির উপকার যা আমাদের অনেকের জীবনে কিছুটা হলেও স্বস্তি নিয়ে আসবে। এখানে আছে এমন অনেক টোটকা বা অনেক উপকারের ডালি যা আপনাকে যথা পরিমানে সাহায্য করবে বলে আমার মনে হয়। ভালো থাকবেন সুস্থ থাকবেন।

Comments are closed.