ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগীদের রক্তে প্লেটলেট বাড়ানোর ৬ টি উপায় – Dengue Treatment Home Remedies In Bengali

আগেই বলে নিচ্ছি কেননা আপনারা পরে ভুলে যান। বাকি বন্ধুদের সাহায্যের উদ্দেশে লাইক আর শেয়ারটা  মনে করে করে দেবেন। শুরু করছি আজকের বিষয় –


নমস্কার বন্ধুরা আমি শান্তনু আপনাদের সবাইকে আমার এই chalokolkata.com এ স্বাগতম।   আশা করি সবাই আপনারা ভালোই আছেন আর  সুস্থ আছেন। কিন্তু বন্ধুরা আমি জানি বা আমরা অনেকেই জানি যে আমরা অনেকে সুস্থ থাকলেও আমাদের মনে বর্তমান সময়ে একটা ভয় কাজ করে সর্বদা আর সেটা হল ডেঙ্গু। এটা নতুন কিছু নয় এটা আমাদের অনেক কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। কেননা রাজ্যে যেমন ভাবে এটা মানে ডেঙ্গু ছড়াচ্ছে আর তার জন্য অনেক সাধারণ ও বেশ বঝা;লো সুষড়হ মানুষ অসুস্থ হৈয়ে যাচ্ছে আর এসব থেকে বড়ো কথা মারা যাচ্ছে। রাজ্যে ২০১৯ সালে অনেক এমন মর্মান্তিক ঘটনা ঘটেছে যার জন্য আমাদের এই ভয়।

টিভি, খবরের কাগজ, সবেতেই এখন হট নিউজ ডেঙ্গু। বুঝতেই পারছেন ডেঙ্গুর আতঙ্কে আমাদের মোটামুটি এখন প্রায় ত্রাহি ত্রাহি অবস্থা ! চারপাশে ডেঙ্গু আক্রান্তের সংখ্যা ক্রমাগত বেড়েই চলেছে ! ডেঙ্গু কিন্তু আদতে যে মশা বাহিত রোগ এটা আপনাদের সব্বার জানা ! কিন্তু জানেন কি, ডেঙ্গু দ্বারা আক্রান্ত রোগীর মৃত্যু পর্যন্ত ঘটতে পারে, কারণ এই রোগের ফলে আমাদের শরীরে প্লেটলেট অত্যন্ত কমে যায়। আর প্লেটলেট অতিরিক্ত মাত্রায় কমে গেলে ইন্টারনাল হ্যামারেজ হওয়ার সম্ভাবনা বেড়ে যায়।

তাই ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগীর প্লেটলেট কাউন্ট যাতে কমে না যায় সেই দিকে বিশেষ নজর দেওয়া দরকার। আর এই গুরুত্ত্বপূর্ণ বিষয়ে ‘দাশবাস’ কিন্তু আপনাদের সাহায্য করতে চায়। আর তাই আজকের আর্টিকেল এই বিষয়টিকে মাথায় রেখেই লেখা!

আপনি বা আপনার কাছের মানুষ বা প্রতিবেশী কেউ যদি ডেঙ্গু দ্বারা আক্রান্ত হয়ে থাকে তাহলে কিন্তু এই আর্টিকেল বিশেষ ভাবে সাহায্য করবে, কারণ আজ আমি ৬ টি খাবারের সন্ধান দেব, যা কিন্তু ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগীর রক্তে প্লেটলেটের মাত্রা বাড়িয়ে তুলতে সাহায্য করবে। তাহলে আসুন আমরা দেখে নি সেই জাদুকরী ৬ টি খাদ্য।

1. বেদানা

বেদানা কিন্তু আপনাকে এই সময় নিয়মিত খেতে হবে দিনে অত্যন্ত ২ টি করে। বেদানাতে ভিটামিন সি ও অ্যান্টি-অক্সিড্যান্ট থাকে যা এক দিকে আপনার ইমিউনিটিকে বাড়িয়ে তোলে এবং সবথেকে গুরুত্বপূর্ণ যেটা সেটা হল, এই ফল অত্যন্ত বেশী মাত্রায় আয়রনে পরিপূর্ণ। যার ফলে মূলত আমাদের রক্তে প্লেটলেট বৃদ্ধি পায়। এই ফল আপনি জুস করেও খেতে পারেন। শুধু পড়লেই হবে না খাবেন কিন্তু। হ্যা জানি অনেক দাম যাদের একটু সমস্যা কিনতে সপ্তাহে ২ তো খেলেই হবে।

2. দুধ

দুধ কিন্তু সকলেই যে খুব ভালোবাসেন খেতে তা কিন্তু নয়। তবে ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগীকে কিন্তু নিয়মিত দুধ খেতেই হবে। কারণ দুধ ক্যালসিয়াম, ভিটামিন K , ফসফরাস, পটাসিয়াম, এবং ফাইব্রিনোজেন নামক প্রোটিন দ্বারা পরিপূর্ণ। এই সব উপাদানগুলি কিন্তু আমাদের শরীরে রক্তে প্লেটলেট কাউন্টকে বাড়ানোর কাজ করে। ক্যালসিয়াম কিন্তু খুব জরুরী রক্তকে জমাট বাধানোর ক্ষেত্রে। কারণ প্লেটলেটের নির্দিষ্ট মাত্রা ও ক্যালসিয়াম এই দুই উপাদান মিলিত হয়ে রক্ত জমাট বাধে। ডেঙ্গু দ্বারা আক্রান্ত হলেই প্রথম দিন থেকেই দুধ কিন্তু মাস্ট।

3. ভিটামিন কে যুক্ত খাবার

ভিটামিন K যুক্ত খাবার কিন্তু এই সময় বেশী করে খাওয়া খুব জরুরী। প্রতিদিনের খাবারে পালং শাক, লেটুস পাতা, ব্রকোলি, বাঁধাকপি, সয়াবিন, কুমড়ো, শসা ইত্যাদি খেতেই হবে। এগুলি রক্তে প্লেটলেট কাউন্ট বাড়ানোর ক্ষেত্রে খুব বেশী মাত্রায় সাহায্য করবে। এছাড়া চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী কিন্তু ভিটামিন K সাপ্লিমেন্টও নিতে পারেন।

4. পেঁপে পাতা

বন্ধুরা আমি দায়িত্ব নিয়ে বলছি এটা সব থেকে উপকারী। যদিও অনেকে জানেন তাও বলছি ডেঙ্গু রোগীর রক্তে প্লেটলেট বাড়াতে পেঁপে পাতার জুস অত্যন্ত বেশী মাত্রায় উপকারী। চিকিৎসকেরাও কিন্তু ডেঙ্গু হলে এই খাবারটি খেতে পরামর্শ দিয়ে থাকেন।

উপকরণ

পেঁপে পাতা বেশ কয়েকটি।

পদ্ধতি

এর  জন্য আপনাকে একটি পাত্রে জল ও পেঁপে পাতা নিয়ে হালকা আঁচে ১০-১২ মিনিট ফোটাতে হবে। জলের পরিমাণ অর্ধেক হয়ে আসলে তা ছেঁকে নিয়ে দিনে দু’বার করে খেতে হবে। এটি প্লেটলেট কাউন্ট বাড়িয়ে তুলতে সাহায্য করবে।

5. প্রোটিন 

প্রোটিন যুক্ত খাবার, যেমন চিকেন বা মাছ আপনাকে  খেতে হবে এই সময়। সবজি দিয়ে চিকেন স্যুপ কিন্তু খুব উপকারী। এছাড়া বেশী করে মাছ খেলেও কিন্তু খুব তাড়াতাড়ি প্লেটলেট বেড়ে যাবে।

ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগীর ক্রমাগত প্লেটলেট কমে যাওয়ার ফলে কিন্তু দুর্বলতা খুব বেশী পরিমাণে চলে আসে। ফলে খাওয়া-দাওয়ার বিশেষ নজর রাখতে হয়। কারণ ঠিক মত খাবারই আপনার শরীরের প্লেটলেট বাড়াতে খুব বেশী করে সাহায্য করে।

এছাড়া প্রচুর পরিমাণে জল খেতে হবে, ৭-৮ ঘন্টা ঘুমোতে হবে, বেশী স্ট্রেস নেওয়া চলবে না। নিয়মিত রক্ত পরীক্ষা করাতে হবে ও পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতার বিষয়ে বিশেষ খেয়াল রাখতে হবে। অতিরিক্ত হারে প্লেটলেট কমে গেলে কিন্তু একদম দেরী না করে চিকিৎসকের পরামর্শ নেওয়া বাঞ্ছনীয়।

6. ভিটামিন এ যুক্ত খাবার

ভিটামিন কে এর মত ভিটামিন এ যুক্ত খাবারও কিন্তু ডেঙ্গু আক্রান্তের জন্য খুব প্রয়োজন। এই উপাদানও বিশেষ ভাবে সাহায্য করে রক্তে প্লেটলেটের মাত্রা বাড়িয়ে তুলতে। গাজর, কুমড়ো, টমেটো ইত্যাদি কিন্তু ভিটামিন এ দ্বারা পরিপূর্ণ। তাই দিনে একবার করে গাজরের জুস বা কুমড়োর জুস খেলে কিন্তু আপনি বিশেষ উপকৃত হবেন ।

শেষ কথা 

আজকের বিশেষ এই আর্টিকেল এ একটাই কথা বলবো সবার জন্য যে আপনারা কেউ চট করে ভয় পেয়ে যাবেন না। ডাক্তার ১০০ শতাংশ দেখাতেই হবে ঘরের টোটকার সাথে। মশারি টাঙিয়ে শুতে হবে। বাড়ির আনাচে কানাচে একদম জমা জল যেন না থাকে সেটা দেখতে হবে ,আর তার পাশা পাশি এটাও দেখতে হবে যে অন্য কোনো বাড়ির আনাচে কানাচে জল জমা আছে কিনা সেটাও বন্ধ করতে হবে। কেননা এর থেকেই সেই বিষাক্ত মশা জন্মায় যা আমাদের মেরে ফেলে। ভালো থাকুন সুস্থ থাকুন আর অনেক সচেতন থাকুন।



Comments are closed.