মুরগির মাংসের পুষ্টিগুণ ও উপকারিতা – nutritional Benefits Of Poultry In Bengali

0

আগেই বলে নিচ্ছি কেননা আপনারা পরে ভুলে যান। বাকি বন্ধুদের সাহায্যের উদ্দেশে লাইক আর শেয়ারটা  মনে করে করে দেবেন। শুরু করছি আজকের বিষয় –


নমস্কার বন্ধুরা আমি শান্তনু আপনাদের সবাইকে আমার এই chalokolkata.com এ স্বাগতম।   আশা করি সবাই আপনারা ভালোই আছেন আর  সুস্থ আছেন। বন্ধুরা আমাদের সকলের প্রিয় চিকেন মানে বাংলায় যাকে বলি মুরগির মাংস। চিকেনের এত্ত আইটেম আছে যা বলে শেষ করা যাবে না। আমরা তো অনেক ভালো খাই কিন্তু আমরা কি জানি যে চিকেন এর কি কি উপকার। হ্যা বন্ধুরা চিকেন এর অনেক উপকার আছে সেটাই আজকে তোমাদের সাথে আলোচনা করবো। আমরা আজকে আরও জন্য যে – মুরগির মাংসের পুষ্টিগুণ, মুরগির মাংসের অপকারিতা, ব্রয়লার মুরগি খাওয়ার উপকারিতা, ফার্মের মুরগির উপকারিতা, গরুর মাংসের উপকারিতা, ব্রয়লার মুরগির ক্ষতিকর দিক ইত্যাদি ইত্যাদি।

 

গৃহপালিত পাখিদের মধ্যে অন্যতম হচ্ছে মুরগি। মুরগির মাংস ও ডিম প্রোটিনের ভাল উৎস। পাশাপাশি মুরগির মাংসে প্রচুর ভিটামিন ও খনিজ উপাদান রয়েছে। এই উপাদান গুলো মানব শরীরের জন্য নানাবিধ উপকার করে থাকে। আসুন দেখে নেই মুরগির মাংসে কি কি স্বাস্থ্য উপাদান রয়েছে।

1. চোখ ভালো রাখে

অন্য খাবারগুলোর মতো মুরগির মাংসও চোখের সুরক্ষায় কাজ করে। মুরগির মাংসে রেটিনল, আলফা ও বিটা ক্যারোটিন, লাইকোপেন থাকে যার সবগুলোই ভিটামিন ‘এ’ তে পাওয়া যায়। চোখের স্বাস্থ্য ভালো রাখতে এগুলো জরুরি উপাদান।

2. বিষণ্নতা দূর করে

মুরগির মাংসে উচ্চ মাত্রায় ট্রাইফটোফ্যান নামক অ্যামিনো অ্যাসিড থাকে। ফলে এক বাটি চিকেন স্যুপ স্বস্তি এনে দিতে পারে। বিষণ্নবোধ হলে কয়েকটি চিকেন উইংস খাওয়া যেতে পারে। যা মস্তিষ্কে সেরেটোনিনের মাত্রা বাড়িয়ে চাপমুক্ত থাকতে সাহায্য করে।

3. হাড়ের ক্ষয় প্রতিরোধ করে

বয়স্কদের আর্থ্রাইটিস ও হাড় সংক্রান্ত অন্য রোগের আশঙ্কা বেশি থাকে। কিন্তু ভয়ের কিছু নেই। প্রতিদিন মুরগির মাংস খাবার তালিকায় রাখলে এর প্রোটিন হাড়ের ক্ষয় প্রতিরোধ করবে।

4. হার্টের জন্য ভালো

মুরগির মাংস হোমোকিস্টাইনের মাত্রা নিয়ন্ত্রণে রেখে হার্টের বিভিন্ন ধরনের কার্ডিওভাস্কুলার রোগের বিরুদ্ধে কাজ করে। হোমোকিস্টাইন একটি অ্যামিনো অ্যাসিড। উচ্চমাত্রায় এটি হার্টের জন্য মারাত্মক ক্ষতিকর।

5. ফসফরাসের প্রাচুর্য

মুরগির মাংস ফসফরাস সমৃদ্ধ হওয়ায় দাঁত ও হাড়ের স্বাস্থ্য ভালো রাখে। এছাড়া ফসফরাস কিডনি, লিভার ও স্নায়ুতন্ত্রের নিয়ন্ত্রণে রাখতে সাহায্য করে।

6. ‘নিয়াসিন’ সমৃদ্ধ

শরীরকে ক্যান্সারমুক্ত রাখতে নিয়াসিন একটি প্রয়োজনীয় ভিটামিন। মুরগির মাংসে প্রচুর পরিমাণে নিয়াসিন থাকে, যা বিভিন্ন রকমের ক্যান্সার ও ত্রুটিপূর্ণ ডিএনএ দ্বারা যেসব জিনগত সমস্যা তৈরি হয় তার বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তোলে।

7. হজমে সাহায্য করে

মুরগির মাংসের ভিটামিন বি-৬ শরীরে বিপাকের মাত্রা উন্নত করে। শরীরে চর্বি না বাড়িয়েই খাবার হজম করতে পারে। রক্তনালী ঠিক রাখতেও এটি কাজ করে।

8 প্রোটিনে ভরপুর

মুরগির মাংসে প্রচুর পরিমাণে প্রোটিন থাকে। যা পেশীকে শক্তিশালী করতে ভূমিকা রাখে। কম চর্বিযুক্ত প্রোটিন হওয়ায় এটি ওজন কমানোর ভালো উৎস। পেট ভরা রেখেও দীর্ঘদিন ওজন কমিয়ে রাখতে চাইলে মুরগির মাংস নিঃসন্দেহে স্বাস্থ্যকর খাবার।

শেষ কথা 

যেকোনো খাবার হোক না কেন তার যেটা ভালো দিক থাকে আবার খারাপ দিকটাও থাকে। তাই একটু বুঝে শুনে খেলে আপনার কোনো ক্ষতি হবে না। তবে চিকেন এর ক্ষেত্রে ঠিক আছে। তবে একটু তেল মশলা কম দিয়ে মানে অনেকটা কম দিয়ে রান্না করলে অনেক ভালো আর সেটাও অনেক উপকার হবে।


Leave A Reply

Your email address will not be published.