পুদিনা পাতার উপকারিতা – Benefits of Mint Leaves

নমস্কার বন্ধুরা আমি শান্তনু আপনাদের সবাইকে আমার এই পেজ chalokolkata.com  এ স্বাগতম। আজ আমি আবার চলে এসেছি আপনাদের জন্য বা আমাদের সবার জন্য একটা দারুন টপিক নিয়ে যেটা আমাদের দৈনন্দিন জীবনে চলার পথে প্রত্যেক দিন কোনো না কোনো কাজেলেগেই থাকে । আর এখন গরম কাল তাই এখন এর ব্যাবহার তা অনেকটাই বেশি। তবে ১২ মাস এর কদর একেবারে তুঙ্গে। জিনিসটা হলো আমাদের সকলের প্রিয় পুদিনা পাতা (Mint Leaves) আজ আমি এর উপকার ব্যবহার নিয়েই আলোচনা করবো। আমি  সব সময় চেষ্টা করে থাকি আপনাদের প্রতি নিয়ত চাহিদা বা জানকারী দেবার। আপনাদের যদি কোনো রকম অন্য কিছু বিষয়ে জানার থাকে যে কোনো বিষয়ে …তাহলে আমাকে কমেন্ট বক্স এ জিজ্ঞাসা করতে পারেন আমি যথাসাদ্ধ চেষ্টা করবো আপনাদের সাহায্য করার। বন্ধুরা আজ আমি আপনাদের জানাবো যে – পুদিনা পাতার অপকারিতা, পুদিনা পাতার জুসের উপকারিতা, পুদিনা পাতার বৈশিষ্ট্য, পুদিনা পাতার রেসিপি, রান্নায় পুদিনা পাতার ব্যবহার, পুদিনা পাতা চাষ পদ্ধতি, পুদিনা পাতা কোথায় পাওয়া যায়, পুদিনার অপকারিতা ইত্যাদি ইত্যাদি। 


বন্ধুরা আমাদের সকলের কাছেই পুদিনা পাতা খুবই পরিচিত। পুদিনা একটি সাধারণ আগাছা ধরনের গাছ। এর কাণ্ড ও পাতা বেশ নরম প্রকৃতির হয় । কাণ্ডের রঙ বেগুনি, পাতার রঙ সবুজ। ছোট গুল্ম জাতীয় এই গাছের পাতা ডিম্বাকার, পাতার কিনারা খাঁজকাটা ও সুগন্ধীযুক্ত হয়। পাতা কিছুটা রোমশ ও মিন্টের তীব্র গন্ধযুক্ত হয়ে থাকে । পুদিনা পাতার মূল, পাতা, কান্ড সহ সমগ্র গাছই ওষুধীগুনে পরিপূর্ণ । বিশ্বের অনেক দেশেই পুদিনার গাছ জন্মে। এর পাতা সুগন্ধি হিসাবে রান্নায় ব্যবহার করা হয়। এবারের অনেক রকম শরবত আছে যা গুনে শেষ করা যাবে না তাতেও পুদিনার ব্যবহার অতুলনীয়। আমরা জেনে নেবো কি কি উপকার ও ব্যবহার।

1. গরম কালে বা গীষ্ম কালে ত্বকের জ্বালাপোড়া ও ফুসকুরি সমস্যায় কয়েকটি পুদিনার পাতা চটকে স্নানের  জলতে মিশিয়ে স্নান করলে ভালো কাজ হয়।

2. আমাদের অনেক সময় আমাদের দোষেই আমাদের মুখের দুর্গন্ধ ট্যিরী হয় যেটা আমরা অনেকেই বুঝতে পারিনা যতক্ষণ না অন্য কেউ আমাদের বলে। সত্যি কথা বলতে অনেক লজ্জায় পড়তে হয়। তাই মুখের দুর্গন্ধ দুর করতে পুদিনা পাতা জলের সাথে মিশিয়ে কুলি করুন। আমি বলছি উপকার পাবেন।

3. আপনি খেতে খুব ভালোবাসেন তবে আপনার হজমের সমস্যা আছে কি তাই তো ? পুদিনা পাতা হচ্ছে আপনার একমাত্র ভরসা। পুদিনা পাতা হজম শক্তি বাড়ায়,মুখের অরুচি ও গ্যাসের সমস্যা দুর করে, কর্মক্ষমতা বৃদ্বি করে ও শরীর ঠান্ডা রাখে। আজকেই শুরু করুন ব্যাবহার।

4. পুদিনা ত্বকের যে কোনো সংক্রমণকে ঠেকাতে অ্যান্টিবায়োটিকের কাজ করে। বেশ কিছু শুকনো পুদিনা পাতা ফুটিয়ে পুদিনার জল তৈরি করে ফ্রিজে রেখে দিন। এক বালতি জলতে দশ থেকে পনেরো চামচ পুদিনার জল মিশিয়ে স্নান করুন। এর ফলে গরমকালে শরীরে ব্যাকটেরিয়া জনিত বিশ্রী দুর্গন্ধের হাত থেকে রেহাই পাবেন, কেননা পুদিনার অ্যাস্ট্রিঞ্জেন্ট গুণ অতুলনীয়। ঘামাচি, অ্যালার্জিও হবে না।

5. পুদিনা পাতার রস তাত্‍ক্ষণিক ব্যথানাশক উপাদান হিসেবে কাজ করে। পুদিনা পাতার রস চামড়ার ভেতর দিয়ে নার্ভে পৌঁছে নার্ভ শান্ত করতে সহায়তা করে। তাই মাথা ব্যথা বা জয়েন্টে ব্যথা উপশমে পুদিনা পাতা ব্যবহার করা যায়। মাথা ব্যথা হলে পুদিনা পাতার চা পান করতে পারেন। অথবা তাজা কিছু পুদিনা পাতা চিবিয়ে খেতে পারেন। জয়েন্টে ব্যথায় পুদিনা পাতা বেটে প্রলেপ দিতে পারেন। অনেক কিছুই আছে আমি বলছি উপকার পাবেন।

6. পুদিনা পাতার চা শরীরের ব্যাথা দুর করতে খুবই উপকারি।

7. মাইগ্রেনের ব্যাথা দুর করতে নাকের কাছে টাটকা পুদিনা পাতা ধরুন।এর গন্ধ মাথাব্যাথা সারাতে খুবই উপকারি।

8. কোন ব্যাক্তি যদি হঠাত করে অগ্গান হয়ে যায় তবে তার  নাকের কাছে পুদিনা পাতা ধরুন। সেন্স ফিরে আসবে।

9. অনবরত হেচকি উঠলে পুদিনা পাতার সাথে গোলমরিচ পিষে ছেকে নিয়ে রসটুকু পান করুন।কিছুক্ষনের মধ্যেই হেচকি বন্ধ হয়ে যাবে।

10. গোলাপ, পুদিনা, আমলা, বাঁধাকপি ও শশার নির্যাস একসঙ্গে মিশিয়ে টোনার তৈরি করে মুখে লাগালে তা ত্বককে মসৃণ করে তোলে।

শেষ কথা 

পুদিনা আমাদের অনেক কাজে লাগে বন্ধুরা। আরও অনেক কাজ আছে পুদিনার সেটা আমাদের পেজ এ খুঁজলেই আপনি পেয়ে যাবেন। ভালো থাকবেন সুস্থ থাকবেন। পুদিনা ব্যবহার করবেন।



Comments are closed.