শসা ত্বকের কী কী উপকার করে – Cucumber Benefits For Skin

নমস্কার বন্ধুরা আমি শান্তনু আপনাদের সবাইকে অনেক অনেক ভালোবাসা ও স্বাগতম আমার এই পেজ এ। আশা করবো আমার প্রত্যেক লেখা আপনাদের অনেকটাই উপকার করতে সাহায্য করবে বা আশা করবো ভালো লাগবে আপনাদের। আপনাদের সকলের সুস্থতা কামনা করি। আজ আমি আপনাদর শসা ত্বকের প্রতি কতটা উপকারী সেটা বলবো। বন্ধুরা আমরা শসা কম বেশি সবাই খেয়ে থাকি বা সালাদ এও আমরা ব্যাবহার করে থাকি। কিন্তু এই শসা রস কতটা আমাদের ত্বকের পক্ষে উপকারী সেটাই একটু আপনাদের সাথে আলোচনা করবো। শসায় প্রায় ৯০ শতাংশ জল , ভিটামিন-সি, ভিটামিন-কে ও ক্যাফিক এসিড রয়েছে, যা ত্বককে নরম, মসৃণ ও উজ্জ্বল করে। এ ছাড়া ত্বকের জলশুন্যতা দূর করতে এই উপাদান বেশ কার্যকর। আর ত্বকের চুলকানি ও অতিরিক্ত ঘামের সমস্যা দূর করতে নিয়মিত শসার রস ব্যবহার করতে পারেন। আমরা দেখে নেবো শসার জুসের উপকারিতা। 

রোদে পোড়া দাগ দূর করতে

সূর্যের ক্ষতিকর রশ্মির কারণে আমাদের ত্বক পুড়ে যায়। শসা এই পোড়া দাগ সহজেই দূর করে। বাসায় ফিরে শসা কেটে স্লাইস করে মুখে লাগাতে পারেন। অথবা শসা বেটে এর রস মুখে লাগিয়ে ১৫ মিনিট পর ধুয়ে ফেলুন। কিংবা শসার রস দিয়ে আইস কিউব বানিয়ে ফ্রিজে রাখুন। প্রতিদিন বাসায় ফিরে এই আইস কিউব মুখে ঘষুন। এতে আপনার ত্বকের রোদে পোড়া দাগ অনেকটা দূর হবে।

ত্বক উজ্জ্বল করে

শসার রসের সঙ্গে লেবুর রস মিশিয়ে মুখে লাগিয়ে ১৫ মিনিট পর ধুয়ে ফেলুন। নিয়মিত এই প্যাক ব্যবহারে আপনার ত্বক হবে উজ্জ্বল ও দাগহীন।

চোখের নিচের কালো দাগ দূর করে

ডার্ক সার্কেল বা চোখের নিচের কালো দাগ দূর করতে শসার রস বেশ কার্যকর। শসার অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট ও সিলিকা চোখের নিচের কালো দাগ সহজেই দূর করে। লাইট বন্ধ করে চোখের ওপর দুই টুকরা শসা দিয়ে ১৫ মিনিট শুয়ে থাকুন। এভাবে টানা এক মাস করলে চোখের নিচের কালো দাগ একেবারে দূর হবে।

ত্বক টানটান করে

শসার রস ত্বকে টোনারের কাজ করে। এই রসের সঙ্গে গোলাপজল, মধু ও লেবুর রস মিশিয়ে মুখে লাগান। ১৫ মিনিট পর শুকিয়ে গেলে পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন। এটি কোঁচকানো ভাব দূর করে ত্বক টানটান করে।

চোখের ফোলা ভাব দূর করে

রাতে ঘুমানোর আগে চোখের চারপাশে শসার রস লাগিয়ে ১৫ মিনিট পর ধুয়ে ফেলুন। এটি চোখের ফোলা ভাব দূর করতে বেশ কার্যকর।

শসা ত্বকের আরও কী কী উপকার করে

1. মুখে কোনো কালো দাগ পড়লে কচি শসার রস মুখে লাগিয়ে ১৫ মিনিট রেখে ঠাণ্ডা পানিতে ধুয়ে নেবেন। এভাবে কিছুদিন . নিয়মিত লাগালে দাগ উঠে যায়।
2. শসার রসের সাথে কয়েক ফোঁটা লেবুর রস মুখে মেখে শুকিয়ে গেলে ঠাণ্ডা পানিতে ধুয়ে নিলে মুখের রং উজ্জ্বল ও কোমল হয়। তবে নিয়মিত কিছুদিন করতে হবে।
অনেক সময় দেখা যায় চোখের নিচে অনেকেরই কালো দাগ পড়ে। শসার রস নিয়মিত মাখলে এ দাগ দূর হবে।
3. যদি কেউ ফর্সা হতে চান তবে নিয়মিত শসার রসের সাথে কয়েক ফোঁটা লেবুর রস মিশিয়ে মুখে, হাতে ও গায়ে নিয়মিত মাখলে গায়ের রং ফর্সা হয় অথবা শসা পাতলা পাতলা করে কেটে মুখে ঘসে নিতে পারেন। পরে শুকোলে ঠাণ্ডা পানিতে ধুয়ে নেবেন।
4. মুখকে রোদ থেকে বাঁচাতে, মুখের দাগ তুলতে ও ময়লা থেকে যদি রেহাই পেতে চান তবে শসার সাহায্যে একটি ফেসপ্যাক বানিয়ে ২৫/৩০ মিনিট রেখে প্রথমে গরম পানি, পরে ঠাণ্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে নিয়ে আপনি নিশ্চিন্তে বাইরে বেড়িয়ে আসতে পারেন। এতে ত্বক সারাদিনের জন্যে যেমন চকচকে, মসৃণ ও কোমল থাকবে তেমনি বাইরের নানান জীবাণু থেকে ত্বক রেহাই পাবে।

Comments are closed.