প্রাকৃতিকভাবে, রাতারাতি ফর্সা হওয়ার উপায় ও ক্রীম – Fairness Tips Home Remedies

0

ফর্সা হওয়ার ৩ টি নাইট ক্রিম বানানোর ঘরোয়া পদ্ধতি জেনে নিন!


আমাদের মুখের ত্বকেরও কিছু চাহিদা থাকে যা আমরা পূরণ করতে পারি নাইট ক্রিমের মাধ্যমে। একমাত্র ঘুমের সময় আমাদের শরীর, ত্বক অনেক বেশি রিলাক্স থাকে তাই রাতে ক্রিম খুব ভালো কাজ দেয়। রাতের জন্য তৈরি ক্রীম গুলোতে আলাদা কিছু উপাদান থাকে, যা সারা রাত ত্বককে পুষ্টি যোগায়। আর সম্পূর্ণ প্রাকৃতিক উপাদানে তৈরি বলে কোন রকম পার্শ্বপ্রতিক্রিয়াও নেই। তবে যাদের ব্রণ আছে তাদের নাইট ক্রিম ব্যবহার না করাই ভাল। চলুন জেনে নেই ঘরোয়া পদ্ধতিতে তিনটি নাইট ক্রিম বানানোর নিয়ম : Beauty Tips Fairness Home Remedies – Bangla Beauty Tips For Fairness

Beauty Tips For Oily Skin In Bangla Language

হোয়াইট / গ্রিন টি নাইট ক্রিম

হোয়াইট ও গ্রিন টি দুটাই প্রচুর অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট সমৃদ্ধ। যা ত্বকের অকালবার্ধক্যের বিরুদ্ধে কার্যকর। ত্বকের ক্যান্সার রোধে, কোষ পুনর্নবীকরণেও সাহায্য করে। ফুসকুড়ি এবং ব্রণ ওঠার ক্ষেত্রে, ক্যাটচিনস নামক যৌগ, ব্যাকটেরিয়া বিরোধী উপাদান হিসাবে কাজ করে।

তৈরি করবেন যেভাবে

২৫ আউন্স বিশুদ্ধ মোম নিয়ে এর সাথে ১ আউন্স কাঠবাদাম তেল, ১ আউন্স নারকেল তেল, ১ চা চামচ গোলাপের বীজ তেল মেশান এবং ডাবল বয়লারে দিয়ে গলতে দিন।

এদিকে কয়েক মিনিটের জন্য সবুজ / সাদা চায়ের ১ প্যাকেট ১ চাপ গরম জল দিন। এবার ডবল বয়লারে দেয়া মিশ্রণটিতে জল ছেঁকে দিন যদি পাতা ব্যবহার করে থাকেন।

মোম গলে গেলে ঠান্ডা হতে এক বা দুই মিনিট অপেক্ষা করুন। একটি চালনীতে চেলে নিন। একটি হ্যান্ড ব্লেন্ডার ব্যবহার করে মিশ্রণটি ফেটাতে থাকুন যতক্ষণ না একটি মসৃণ ঘনত্বে পরিণত না হয়।

মুখ ধুয়ে হালকা মুছে নিন এবং ক্রিমটি বৃত্তাকারে লাগান ত্বক শুষে না নেয়া পর্যন্ত। সকালে ঠান্ডা জল এবং মৃদু ক্লিনজার দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। কড়া রাসায়নিক আছে এমন ক্লিনজার ব্যবহারে ভালো ফল পাবেন না। একটি ঠান্ডা, অন্ধকার জায়গায় রাখুন। ফ্রিজে রাখবেন না। তেলের কারণে ক্রিমটি দীর্ঘদিন রেখে দেওয়া যাবে। এক মাসের বেশী ব্যবহার করা যাবে দৈনিক ব্যবহার করেও।

অলিভ অয়েল নাইট ক্রিম

অলিভ অয়েল ত্বকের রং উ্জ্বল করতে সাহায্য করে। এটি একটি প্রাকৃতিক ময়শ্চারাইজার হিসাবে কাজ করে, চর্বি ও অ্যান্টি অক্সিডেন্ট সমূহের কারণে ত্বকের বার্ধক্য বিলম্বিত হয়।

একটি ছোট সসপ্যানে অলিভ অয়েল ১/৪ কাপ, ১ কাপ নারকেল তেল এবং ১ চা চামচ মোম একসাথে মেশান । একটি ডবল বয়লারে কম তাপে মিশ্রণ গলা শুরু না হওয়া পর্যন্ত নাড়তে থাকুন । মিশ্রণটি নামিয়ে ঠান্ডা না হওয়া পর্যন্ত অপেক্ষা করুন। মিশ্রণের সাথে ভিটামিন ই ক্যাপসুল দুয়েক থেকে তেল যোগ করতে পারেন। এছাড়াও আপনার প্রিয় কোন এ্যাসেন্সিয়াল অয়েল যেমন ল্যাভেন্ডার, লেমন, টি ট্রী অয়েল কয়েক ফোঁটা যোগ করতে পারেন।

শুকনো জায়গায়, একটি কন্টেইনারে স্টোর করুন। আর্দ্র জায়গায় রেখে না দিলে ক্রিমটি শক্ত হয়ে যাবে। ক্রিম লাগাবার আগে মুখ ধুয়ে হালকাভাবে মুছে শুকিয়ে নিন। ক্রিমটি মুখে বৃত্তাকার ম্যাসাজ করুন। মৃদু ক্লিনজার দিয়ে পরের দিন সকালে মুখ ধুয়ে ফেলুন।

সতর্কতা- যাদের তৈলাক্ত ত্বক তাদের এই ক্রিমে ব্রেকআউটস হতে পারে। কয়েক দিনের জন্য এটি ব্যবহার করে দেখতে পারেন আপনার ত্বকে মানিয়ে যাচ্ছে কিনা। এটি সাধারণত শুষ্ক ত্বকের ব্যক্তিদের জন্য খুব ভাল কাজ করে।

আপেল নাইট ক্রিম

আপেলে রয়েছে ভিটামিন এ, বি, সি, বিটা ক্যারোটিন, ম্যালিক অ্যাসিড এবং অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট পূর্ণ যা উজ্বল এবং তারুণ্যপূর্ণ ত্বকের জন্য অপরিহার্য। আর গোলাপজল ত্বককে প্রশমিত করে, পিএইচ লেভেলের ভারসাম্য বজায় রাখে, ক্ষত সারায় , টিস্যু পুনর্জীবিত করে। অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট বৈশিষ্ট্যে পূর্ণ গোলাপজলের গন্ধও অসাধারণ।

একটি আপেলকে দুভাগ করে কেটে , বিচী ফেলে ছোট কিউব করে কাটুন। কিউবগুলোর সঙ্গে জলপাই তেল বা রোজ তেল বা বাদাম তেল ২ চা চামচ দিয়ে ব্লেন্ড করে মসৃণ পেস্ট বানান।

একটি ডবল বয়লারে মিশ্রণটি গরম না হওয়া পর্যন্ত মেশান। বয়লার থেকে মিশ্রণটি নামান এবং ঠান্ডা হতে দিন। মিশ্রণটি ঠান্ডা হলে এতে ২ চা চামচ গোলাপজল যোগ করুন। যদি ব্রণের সমস্যা থাকে তাহলে এতে মধু, দারুচিনি, জায়ফল বা হলুদ যোগ করতে পারেন। এই সব উপাদান ব্রণ কমাতে সাহায্য করবে। সম্ভব হলে সবুজ আপেল ব্যবহার করুন।

একটি কন্টেইনারে স্টোর করে ফ্রিজে রাখুন। দৈনিক ব্যবহারে মিশ্রণটি এক সপ্তাহের জন্য ব্যবহার করতে পারবেন।

মুখ ধুয়ে চেপে শুকিয়ে নিয়ে ক্রিমটি লাগান। ক্রিম লাগিয়ে সাথে সাথে বিছানায় শুতে যাবেন না। ১০ মিনিট অপেক্ষা করুন, শুকোতে দিন। পরের দিন সকালে মৃদু ক্লিনজার ও ঠাণ্ডা জলে মুখ ধোবেন।



Leave A Reply

Your email address will not be published.