পেঁয়াজের রস চুলের উপকারিতা – Benefits Of Onion Juice

মানবসভ্যতার ইতিহাসের আদিযুগ থেকেই পিঁয়াজের ব্যবহার শুরু হয়েছে। পৃথিবীর প্রায় সব খানের সমাজেই বিভিন্ন রান্নায় পিঁয়াজ ব্যবহার করা হয়ে থাকে। বর্তমানে কাচা , জমানো, আচার , চূর্ণ, কুঁচি, ভাজা, এবং শুকনো করা পিঁয়াজ ব্যবহার করা হয়। শুধু পিঁয়াজ সাধারণত সরাসরি খাওয়া হয়না, বরং পিঁয়াজ কুঁচি বা ফালি করে কাচা অবস্থায় সালাদএ , অথবা রান্নাতে উপকরণ হিসাবে ব্যবহার করা হয়। পিঁয়াজ বিভিন্ন রকমের হতে পারে – ঝাঁঝালো, মিষ্টি , তিতা। এবার আসি পিয়াজেরউপকারিতা নিয়ে।পিয়াজ আমাদের অনেক কাজে লাগে আমাদের খাবারের জন্য পিয়াজ ছাড়াও আমাদের দৈনন্দিন জীবনে ব্যবহারের জন্য এমন অনেক জিনিস আছে যা আমাদের অনেক কাজে লাগে।বিশেষ করে পিয়াজের রস

খুশকি খুব ভয়াবহ একটি সমস্যা। খুশকি আপনার জীবনকে দুর্বিষহ করে তোলার আগেই আপনাকে এর থেকে পরিত্রান পেতে হবে। স্ক্যাল্প চুলকানোর থেকেও বিব্রতকর বিষয় হলো খুশকির সাদা আঁশগুলো। এবং আপনিও  এই সমস্যার একটি দীর্ঘস্থায়ী সমাধান চান।

পেঁয়াজের রস চুলের উপকারিতা

খুশকি থেকে মুক্তি পাওয়ার জন্য পেঁয়াজের রস চুলের জন্য সবচেয়ে সহজ এবং সঠিক সমাধান কারণ এটা সহজলভ্য এবং এ্যান্টিব্যাক্টেরিয়াল। খুশকি দূর করার জন্য আমরা আপনাদেরকে পেঁয়াজের রস ব্যবহারের সবচেয়ে কার্যকর কিছু  ঘরোয়া উপায় বলবো, আর বলবো পেঁয়াজের রস দিয়ে চুলের যত্ন কি ভাবে নিতে হয়।

আমরা সবাই জানি, পেঁয়াজের রস নতুন চুল গজাতে সাহায্য করে, চুলপড়া কমায় এবং চুলের গোড়া শক্ত করে। কিন্তু অনেকেই জানি না কীভাবে মাথায় পেঁয়াজের রস ব্যবহার করবেন। এই রসের সঙ্গে অন্য প্রাকৃতিক উপাদান মেশালে এর কার্যকারিতা কয়েকগুণ বেড়ে যায়। তবে আমাদের জানতে হবে চুলে পেঁয়াজের রস ব্যবহারের নিয়ম

Benefits Of Onion Juice For Hair Growth In Bengali

কীভাবে মাথায় পেঁয়াজের রস ব্যবহার করবেন সে সম্বন্ধে কয়েকটি উপায়ের কথা বলা হয়েছে বোল্ডস্কাই ওয়েবসাইটের লাইফস্টাইল বিভাগে। আপনি চাইলে এই পরামর্শগুলো একবার পরখ করতে পারেন।

1. পেঁয়াজ কেটে ভালো করে ব্লেন্ড করে নিন। এবার এর রস বের করে নিয়ে মাথার ত্বকে লাগান। ৩০ থেকে ৪০ মিনিট অপেক্ষা করুন। এবার মাইল্ড শ্যাম্পু দিয়ে চুল ধুয়ে ফেলুন।

2. পেঁয়জের রসের সঙ্গে হালকা গরম জল মিশিয়ে নিন। স্নানের পর এই জল দিয়ে মাথা ভালো করে ধুয়ে নিন। একদিন পর শ্যাম্পু করে ফেলুন। এতে মাথা থেকে পেঁয়াজের গন্ধ আসতে পারে। তবে চুলের জন্য এই জল বেশ উপকারী।

3. পেঁয়াজের রসের সঙ্গে নারকেল তেল ও কয়েক ফোটা এসেনশিয়াল অয়েল মিশিয়ে মাথার ত্বকে লাগান। এক ঘণ্টা পর শ্যাম্পু করে ধুয়ে ফেলুন।

4. দুই চা চামচ পেঁয়াজের রসের সঙ্গে এক চা চামচ মধু মিশিয়ে মাথার ত্বকে লাগান। ১৫ থেকে ২০ মিনিট অপেক্ষা করুন। এবার শ্যাম্পু করে ধুয়ে ফেলুন। সপ্তাহে অন্তত একদিন এই প্যাক মাথায় লাগান।

5. পেঁয়াজ বেটে এর সঙ্গে অলিভ অয়েল মিশিয়ে মাথার ত্বকে লাগান। দুই ঘণ্টা অপেক্ষা করুন। এবার শ্যাম্পু করে ধুয়ে ফেলুন।

6.আপনার পরিমাণ মতো ছোট ছোট পেঁয়াজ কুচি কুচি করে কেটে হালকা আঁচে একটা পাত্রে জল দিয়ে তাতে ফোটান যখন দেখবেন পেঁয়াজটা হালকা বাদামি বাদামি হয়ে গেছে বা হালকা সেদ্ধ হয়ে আসছে তখন পাত্রটি চুলা থেকে নামিয়ে ঠান্ডা করুন। এবং একটি সাদা কাপড় দিয়ে ভালো করে জল টা ছেকে নিন। তারপর একটা বোতল এ ভোরে রাখুন। রাত এ সবার আগে ওই জলটা স্প্রে করুন মাথায় ও হালকা হালকা করে ম্যাসাজ করুন। এইরকম ভাবে এক ম্যাসাজকরুন তার পর দেখবেন আপনার চুল কত ঘন হয় আর তার সাথে কালও হবে।

শেষ কথা 

একটা জিনিস মনে রাখবেন পেঁয়াজ সবসময় আমাদের চুলের জন্য অনেকটাই উপকারী তবে খুব তাড়াতাড়ি উপকার পেতে সাঁচি পেঁয়াজ বা এক কোয়া পেঁয়াজ বা ধানি পেঁয়াজ অনেকটাই উপকারীও। এই পেঁয়াজ খুউব কম পাওয়া যায় আর সব জাগায় পাওয়া যায় না। একটু দামি। আর এই পেঁয়াজ দিয়ে হোমিওপ্যাথি ওষুধ তৈরী হয়। তবে এই পেঁয়াজ পেলে অনেকটাই ভালো হবে আপনার।

Comments are closed.