Fruit Juice – Health Tips Bangla

কোন কোন ফলের রস খেলে ত্বক ভালো থাকবে

আমরা সবাই ফল খেতে খুবই ভালোবাসি কম বেশি। ফল শুধু যে আমরা শরীরের জন্য ভালো এটা জেনে খাই তা নয়। ফল আমাদের এমনিতেই ভালো লাগে। দুপুরে খাবারের পর ফল না খেলে তো অনেকের খাবার হজমই হয় না। আর ডায়েটে ফল তো থাকতেই হবে। কিন্তু অনেকে ফল চিবিয়ে না খেয়ে ফলের রস খেতে বেশি ভালোবাসেন। আজকের ব্যস্ত দিনে অবশ্য এতে আশ্চর্য হওয়ার কিছু নেই। সকালে ব্রেকফাস্টে ফলের রস চটপট খেয়ে কাজে যাওয়া তো আমাদের খুবই পরিচিত ঘটনা। আজ আসুন জেনে নিই, এই ফলের রস শরীরের পাশাপাশি আমাদের ত্বকের জন্য আলাদা ভাবে কতটা উপকারী।


1.আনারসের রস

আমরা সবাই জানি যে আনারস আমাদের ওজন কমাতে সাহায্য করে। কিন্তু জানেন কী, ত্বকের জন্যও আনারস কতটা উপকারী? গবেষণায় দেখা গেছে, আনারসে থাকা আলফা হাইড্রক্সি অ্যাসিড ত্বকের বয়স ধরে রাখে। রক্ত ভিতর থেকে পরিষ্কার করে ত্বক উজ্জ্বল করতে সাহায্য করে আনারসের রস। ব্রণর দাগ বা কালো ছোপ সরিয়ে ফেলতেও আনারসের রসের তুলনা নেই।

কীভাবে খাবেন

আনারস থেকে রস বের করে নিন। এর পর সামান্য নুন যোগ করুন। দেখবেন এতে স্বাদ খানিক ভালো হবে।

2. পাকা পেপের রস

পাকা পেপে খেতে বেশ ভালো আর সাড়া বছরই প্রায় পাওয়া যায়। এতে থাকা অ্যান্টি অ্যাজিং প্রপার্টি ত্বকের বয়স ধরে রাখে। ডার্ক সার্কেল যেমন হতে দেয় না, তেমনই সান ট্যান হওয়ার থেকেও আমাদের রেহাই দেয়। পেপেতে থাকা প্যাপেন নামের এনজাইম স্কিন ড্যামেজ হতে দেয় না। তাই পেপের রস খান।

কীভাবে খাবেন

পাকা পেপে ভালো করে কুড়িয়ে নিয়ে তার থেকে রস বের করে নিন। অল্প চিনি দিতেও পারেন, নাও দিতে পারেন। এবার এটা খেয়ে নিন সকালে ব্রেকফাস্টে।

3. আপেলের রস

আপেল আমাদের শরীরের জন্য কতটা উপকারী সেটা আপনারা নিশ্চয়ই এত দিনে দাশবাসের আর্টিকেল পড়ে জেনে গেছেন। ত্বকের জন্যও কিন্তু আলাদা ভাবে খুবই উপকারী এই আপেলের রস। আপেলের রসে থাকা অ্যান্টি অক্সিডেন্ট বলিরেখা দূর করে। আমাদের ত্বকের টিস্যু নষ্ট হতে দেয় না, বরং নতুন কোষ জন্মাতে সাহায্য করে। আপেলের মধ্যে থাকা কপার, ক্লোরিন, জিঙ্ক, ম্যাগনেসিয়াম ত্বককে উজ্জ্বল করতে সাহায্য করে।

কীভাবে খাবেন

আপেল এমনিতেই খেতে খুব ভালো। তাই আপেলের রস সরাসরি সকালে খেয়ে নিন এক গ্লাস। পেটও ভরবে আর ত্বকও ভালো থাকবে।

4.পাতিলেবুর রস

আমরা সবাই জানি যে পাতিলেবুতে ভিটামিন সি থাকে। আর ভিটামিন সি থাকায় একসঙ্গে অনেকগুলো উপকার হয়। ভিটামিন সি ত্বককে ভিতর থেকে পরিষ্কার করে। তাই ত্বক উজ্জ্বল হয়। এছাড়া ত্বককে টানটান রাকে ভিটামিন সি। তাই বলিরেখাও কম হয়। ত্বকের পি.এইচ ব্যাল্যান্স বজায় রাখতেও পাতিলেবুর রস খেতে পারেন।

কীভাবে খাবেন

এক গ্লাস উষ্ণ জলে দু চামচ লেবুর রস নিন। তার মধ্যে এক চামচ মধু নিন। এটা রোজ সকালে ঘুম থেকে উঠে খেয়ে নিন। দেখবেন খুব সুন্দর উপকার পাবেন।

 5. তরমুজের রস

সামনেই গরমকাল আসছে। আর গরমকাল মানেই তরমুজে বাজার ভরে যাবে। তাই তরমুজের রস খান যত খুশি। তরমুজে থাকা ভিটামিন এ, বি৬, সি ত্বকের ভিতর থেকে টক্সিন বের করে দেয়। ফলে পাওয়া যায় উজ্জ্বল দাগহীন ত্বক। ত্বক থেকে অতিরিক্ত তেলের সমস্যা দূর করে ব্রণ বা অন্যান্য সমস্যাও কম হতে দেয়। ত্বকের আর্দ্রতা ধরে রাখে।

কীভাবে খাবেন

তরমুজ এমনিতেই খুব মিষ্টি। তাই সরাসরি তরমুজ থেকে রস বের করে খেয়ে নিন। কিছু আর যোগ করতে হবে না।

6. আমের রস

স্বাদের জন্য আম তো ফলের রাজা বটেই। কিন্তু ত্বকের উপকার করার জন্যও আমকে রাজা বলাই যায়। আপেলে থাকা অ্যান্টি অক্সিডেন্ট শরীরের ফ্রি র্যা ডিকেল দূর করে। কোষ পুনর্গঠন করতে সাহায্য করে। নিয়মিত আমের রস খেলে ত্বকের কালো ছোপ দূর হয়। এতে থাকা ভিটামিন সি ত্বকের থেকে মেলানিন কম করে। ত্বক উজ্জ্বল করে।

কীভাবে খাবেন

ফলের রাজার সঙ্গে অন্য কিছু কী আর চলে! আমের রস শুধুই খেয়ে নিতে পারেন সকালে। দেখবেন খেতে ভালো লাগার পাশাপাশি ত্বকেরও আস্তে আস্তে কত উন্নতি হচ্ছে।

কিন্তু মনে রাখবেন, বাজার থেকে ফলের রস কিনে না খেয়ে নিজে ঘরে বানিয়ে খেয়ে নিন। এতেই আসল উপকার পাবেন। আর উপরে যে কটা ফলের রস বললাম সবকটাই রোজ বদলে বদলে খেয়ে নিন। এতে স্বাদের বদলও হবে।



Comments are closed.