বাংলা ঋতু কালীণ এসএমএস – Bengali Season Sms

গ্রীষ্ম, বর্ষা , শরৎ , হেমন্ত, শীত ও বসন্ত এ ছয় ঋতুর আবর্তন ভারতবর্ষকে বৈচিত্র্যময় করে তোলে। প্রত্যেকটি ঋতুরই রয়েছে স্বতন্ত্র বৈশিষ্ট্র। এক এক ঋতু আমাদের জীবনে আসে এক এক রকম ফুল, ফল, আর ফসলের সম্ভার নিয়ে। এই ছয় ঋতুর ছোঁয়ায় এদেশের প্রকৃতি জেগে ওঠে। জনজীবনে আসে বৈচিত্র্যের দোলা। কোনো কোনো দেশে সারা বছর চলে গ্রীষ্মের দাহন, কোনো দেশে শীতের দাপট। কিন্তু ভারতবর্ষের মানুষ ষড়ঋতুর আশীর্বাদে শীত গ্রীষ্ম বর্ষার স্বাদ আস্বাদনের সুযোগ পায়। এখন আমরা বিস্তারিত ভাবে ঋতু সম্পর্কিত কিছু আলোচনা না করে সরাসরি চলে যাবো যেটা আজ আমাদের প্রধান বিষয়বস্তু বাংলা ঋতু কালীণ এসএমএস sms। এখানে আমি আপনাদের জন্য আপনাদের সুবিধের জন্য ঋতু অনুযায়ী ভাগ ভাগ করে  বাংলা ঋতু কালীণ এসএমএস sms দিলাম।Bangla sms


গ্রীষ্ম (বৈশাখ ও জ্যৈষ্ঠ এই দুই মাস গ্রীষ্মকাল )  Bangla sms

1.শীত গেল গরম এল, পুকুরের জল ময়লা হল। গরমের এখনো নুতন রুপ, নদীতে দিতে হবে ডুব । ওরে আমার বন্ধু গণ , তোমাদের গরমের নিমন্ত্রণ।  “শুভ গরম কাল”

2.আগুন ভরা আকাশ, গরম গরম বাতাস। ছিরবিরানি গা, গরম কমে না।
কলসি কলসি জল, মাথায় দিবি কত বল। এইতো সবে শুরু, ভালো থেকো গুরু। “শুভ গরম কাল”

3.আমি চলে যাচ্ছি… ৫ মাস আর হয়তো দেখা হবে না… যদি কারে মনে কষ্ট দিয়ে থাকি তাহলে ক্ষমা করে দিও … … … ……. ইতি________ তোমাদের প্রিয় গরমকাল…  “শুভ গরম কাল”

4.এল গরম তোমার ধারে, একা একা থেকো রে। সাথে তুমি রেখো না তারে, ভালো তুমি বাসছিলে যারে। এখন নাই আর তার কাম, জানি আমি তার নাম। সেই তোমার সম্বল, তার নাম কম্বল।  “শুভ গরম কাল”

5.ফুলের রানি, রূপের রানি, কোথায় তুমি যাও ? তোমার সাথে সঙ্গী করে আমায় নিয়ে যাও। কি সুন্দর হাসি তোমার, মায়াবীতে ভরা… তোমায় পেলে সত্যি আমি, হব দিশেহারা “শুভ গরম কাল”

6.শেষ হলো শীতের দিন, সামনে আসিতেছে গরমের দিন। ঘামতে হবে ঘাম টিনা টিন ঘাম। আগে থেকেই প্রস্তুতি নিন। গরমের জামা কাপড় কিনে নিন। “শুভ গরম কাল”

বর্ষা ( আষাঢ় ও শ্রাবণ এই দুই মাস বর্ষাকাল )  Bangla sms

1.প্রতিটা শ্রাবণে কারণে অকারণে অহেতুক বাহানায় নানান গল্পের ছলে তোর বৃষ্টিস্নাত শহরে আজীবন ভিজতে চাই।।

2.আকাশে আজ মেঘ জমেছে, রাগ করেছে ভারী। আজ নাকি সারাদিন রোদের সাথে আরি। রোদটাও খুব অভিমানী উঠতে নাহি চায়, এই সুযোগে বৃষ্টি নাকি দারুন মজা পায়।

3.বৃস্টি ভেজা বরষা দিনে খুজি তোমায় আনমনে, বলনা কেমন আছ তুমি বৃস্টির রিমঝিম এই ক্ষনে?

4.আজ আমি বৃস্টিতে ভিজেছি আর মন খুলে কেদেছি___কেউ বুজতেই পারেনি যে আমার চোখ থেকে গরিয়ে পরেছে বৃস্টির জল নাকি চোখের জল__ তাই তো বৃস্টি এলেই আমি নিজেকে ভাসিয়ে দেই বৃস্টির জলে___

5.বৃস্টি ভেজা বরষা দিনে খুজি তোমায় আনমনে, বলনা কেমন আছ তুমি বৃস্টির রিমঝিম এই ক্ষনে?

6.কোনো এক বর্ষার দুপুর বেলায়, যেদিন বৃষ্টি নামবে অঝোর ধারায়, সেদিন বৃষ্টিতে ভেজা দুহাত ভরা কদম ফুল নিয়ে, তোমার দুয়ারে হাত বাড়িয়ে বলব ভুলিনি তোমাকে।

7.আকাশে আজ মেঘ জমেছে, রাগ করেছে ভারী। আজ নাকি সারাদিন রোদের সাথে আরি। রোদটাও খুব অভিমানী উঠতে নাহি চায়, এই সুযোগে বৃষ্টি নাকি দারুন মজা পায়।””

8.কদমে কদমে ভরে গেছে চারপাশ,
এলো বুঝি বর্ষার মাস। নদী নালা থৈ থৈ, বন্ধু তুমি আছো কই। মাঝে মাঝে সূর্য দেয় উকি ঝুঁকি, বন্ধু তুমি দিচ্ছ নাকি আমায় ফাঁকি।

9.কোনো এক বর্ষার দুপুর বেলায়,
যেদিন বৃষ্টি নামবে অঝোর ধারায়, সেদিন বৃষ্টিতে ভেজা দুহাত ভরা কদম ফুল নিয়ে, তোমার দুয়ারে হাত বাড়িয়ে বলব ভুলিনি তোমাকে।

10.মেঘলা মেঘলা আকাশ, ঠান্ডা ঠান্ডা
বাতাস। বৃষ্টি ভেজা গা, জলেতে ভেজা পা।
বৃষ্টি থামেনা- চারদিকে জল, পা সামলে
চল।

শরৎ( ভাদ্র ও আশ্বিন এই দুই মাস শরৎকাল  Bangla sms

1.‘‘শরৎ এলো কী উল্লাসে কাঁপছে নদীর জল পাখনা মেলে বেড়ায় খেলে প্রজাপতির দল! বাজলো কাঁসর সাজলো আসর চলরে সবাই চল মন-গালিচায় বন গালিচায় নামলো খুশির ঢল!!’

2.‘‘বর্ষা হলো শেষ এবার শুরু শরতকাল, কাশফুলেতে সাজবে পথ, শিশির মাখা সকাল। ভাদ্র হলো শুরু আজ আসলো শরতকাল, শিউলী ফুল ফুট্ছে রাতে/ দূর আকাশে/ ভাসবে মেঘের পাল।’’

3.‘‘আজি কি তোমার মধুর মুরতি হেরিনু শারদ প্রভাতে! হে মাত বঙ্গ, শ্যামল অঙ্গ ঝলিছে অমল শোভাতে। পারে না বহিতে নদী জলধার, মাঠে মাঠে ধান ধরে নাকো আর- ডাকিছে দোয়েল গাহিছে কোয়েল তোমার কাননসভাতে!

4.‘‘শরৎ তোমার অরুণ আলোর অঞ্জলি ছড়িয়ে গেল ছাপিয়ে মোহন অঙ্গুলি। শরৎ তোমার শিশির-ধোওয়া কুন্তলে, বনের-পথে লুটিয়ে-পড়া অঞ্চলে আজ প্রভাতের হৃদয় ওঠে চঞ্চলি। আজ শরতের আলোয় এই যে চেয়ে দেখি মনে হয় এ যেন আমার প্রথম দেখা।’’

5.‘‘ভেবেছিলাম প্রথম যেদিন ফুটবে তুমি দেখবো, তোমার পুষ্প বনের গাঁথা মনের মতো লেখব। কথন কালো কাজল মেঘ তো ব্যস্ত ছিল ছুটতে, ভেবেছিলাম আরো কদিন যাবে তোমার ফুটতে। সবে তো এই বর্ষা গেল শরৎ এলো মাত্র, এরই মধ্যে শুভ্র কাশে ভরলো তোমার গাত্র।

হেমন্ত(কার্তিক অগ্রহায়ণ এই দুই মাস হেমন্ত কাল ) Bangla sms

1.হেমন্তের গান শুনি শিরায় শিরায়, এসেছে সে গানের সুর ফসলের মাঠ থেকে দূর বহু দূর ভরে দেশ মন আনন্দ ধারায়। আকাশের নির্মেঘ রূপ আজ বাতাসে ছড়ায় খুশির কারুকাজ পরম তৃপ্তিতে যেনো হৃদয়ে খুশি ঝরায় হেমন্তের গান শুনি শিরায় শিরায়।

2.সবুজ পাতার খামের ভেতর হলুদ গাঁদা চিঠি লেখে কোন্ পাথারের ওপার থেকে আনল ডেকে হেমন্তকে? আনল ডেকে মটরশুঁটি, খেসারি আর কলাই ফুলে আনল ডেকে কুয়াশাকে সাঁঝ সকালে নদীর কূলে। সকাল বেলায় শিশির ভেজা ঘাসের ওপর চলতে গিয়ে হাল্কা মধুর শীতের ছোঁয়ায় শরীর ওঠে শিরশিরিয়ে।

3.আরও এল সাথে সাথে নুতন গাছের খেজুর রসে লোভ দেখিয়ে মিষ্টি পিঠা মিষ্টি রোদে খেতে বসে।
হেমন্ত তার শিশির ভেজা আঁচল তলে শিউলি বোঁটায় চুপে চুপে রং মাখাল আকাশ থেকে ফোঁটায় ফোঁটায়।

4.স্বপ্নের ধান কাটে গায়েতে ঘাম ছোটে নেই তবু ক্লান্তি নবান্নে এলো ধান এই তার শান্তি নতুন চালের পিঠা কত কাজ এটা-সেটা। গ্রীষ্ম এলো বলে শীত তাই আসছে ধেয়ে এইতো হেমন্তকাল আভা আভা শীত শিশির সকাল।

5.আসলো ফিরে হেমন্ত লাগছে বলো কেমনত। মাঠে দোলে পাকা ধান দেখে চাষির নাচে প্রাণ। ধান কেটে বাড়ি আনে কৃষাণ বধূ ধান ভানে। পিঠা খাওয়ার পড়ছে ধুম কারো চোখে নেইকো ঘুম। পাখির কণ্ঠে মধুর গান শিউলি বকুল ছড়ায় ঘ্রাণ। ফুল বাগিচায় ফুটলো ফুল হেমন্ত ঋতুর নেই যে তুল।

শীত (পৌষ ও মাঘ এই দুই মাস শীত কাল )  Bangla sms

1.এসো হে শীত, এসো এসো! চরম গরমে অতিষ্ঠ প্রাণ। রজনী কাটে বিনিদ্র। …হ্যাপি উইন্টার সীজন ..!!

2.শেষ হলো বর্ষার দিন, সামনে আসিতেছে শীতের দিন। কাপতে হবে টিন টিনা টিন টিন। আগে থেকেই প্রস্তুতি নিন। শীতের জামা কাপড় কিনে নিন। …হ্যাপি উইন্টার সীজন ..!!

3.ঈদ গেল শীত এলো, খুশির জোয়ার ফিরে এলো। শীতের এখন নতুন রূপ, কুয়াশা হলো অপরূপ। তুমি আমার আপনজন, তোমাকে শীতের পিঠার নিমন্ত্রণ। …হ্যাপি উইন্টার সীজন ..!!

4.শীত গেলো গরম এল, পুকুরের পানি ময়লা হল। গরমের এখনো নুতন রুপ, নদীতে দিতে হবে ডুপ। ওরে আমার বন্ধু গন,তোমাদের গরমের নিমন্ত্রণ। …হ্যাপি উইন্টার সীজন ..!!

5.এল শীত তোমার ধারে, একা তুমি থেকো নারে। সাথে রেখ শুধু তারে, ভালোবাসো তুমি যারে। এখন শুধু তার কাম, জানি আমি তার নাম। সেই তোমার সম্বল, তার নাম কম্বল। …হ্যাপি উইন্টার সীজন ..!!

বসন্ত ( ফাল্গুন এবং চৈত্র এই দুই মাস বসন্ত কাল Bangla sms

1.ফুলের রানী , রূপের রানী , কোথায় তুমি যাও ? তোমার সাথে সঙ্গী করে আমায় নিয়ে যাও। কি সুন্দর হাসি তোমার, মায়াবীতে ভরা… তোমায় পেলে সত্যি আমি, হব দিশেহারা । “শুভ বসন্ত”।

2.বসন্তের রঙ ছাপিয়েছে একুল আমের মুকুলে ভ্রমর খাচ্ছে দুল,,  “শুভ বসন্ত”।

3.ফুল ফুটলো রাশি রাশি,উদাস মনটা বেজাই খুশি। বসন্তের আগমনে,ফুল ফুটেছে সব বাগানে। তাই কোকিল গান করে, মনের টানে।  “শুভ বসন্ত”।

4.গাছে গাছে নতুন পাতা, ফুল ফুটছে বেশ। সব পাখির মন খারাপ শীতের হল শেষ। নতুন রুপে, নতুন সাঁঝে নিভাবে মনের আগুন। তাইতো আজ প্রকৃতি জুড়ে বসন্তের ফাগুন।  “শুভ বসন্ত”।

5.একটি কবিতা, একটি পলাশ, একটি কোকিল, তুমি আর আমি, সব মিলিয়ে আজ “বসন্ত”।  “শুভ বসন্ত”।

6.প্রকৃতি সেজেছে আজ অপরূপ সাজে, মনের মাঝে একি সুর বাজে। শিমুলের বনে আজ লেগেছে আগুন, আজ কি তবে আবার এসেছে ফাগুন।  “শুভ বসন্ত”।

7. হে বসন্ত, খনিকের মায়ায় যাসনে তুই চলে, যদিও যাবি, যাস তুই আমায় একটু বলে। যাবার সময় দিস আমায় তোর রঙের একটু খানি ছোয়া। দিবি কি আমায়?? আমি এই অল্প খানি চাই, সারাজীবন থাকবো আমি তোরই অপেক্ষায়।  “শুভ বসন্ত”।



Comments are closed.