মোটরসাইকেল ইন্সুরেন্স কি

0

বন্ধুরা কেমন আছেন আশা করবো সবাই ভালো আছেন। বন্ধুরা বহু আগে থেকেই আমাদের চলাচলের সুবিধার জন্য আমাদের অনেক যানবাহনের মধ্যে মোটর সাইকেল হল এক অন্যতম আবিষ্কার।

অনেকেই চলাফেরার সুবিধার্থে মোটরসাইকেল ব্যবহার করেন। এ ধরণের যানবাহনের কথা উঠলে প্রাসঙ্গিকভাবে আসে দুর্ঘটনার কথা। রাস্তায় বের হলে নানা ধরণের দুর্ঘটনা চোখে পড়ে। বেশির ভাগ ক্ষেত্রেই দোষীকে তাৎক্ষনিক জরিমানা প্রদান করতে হয় কিংবা বিভিন্ন মেয়াদে উক্ত ব্যক্তির সাজা হয়। কিন্তু এ ধরণের দুর্ঘটনার কারণে যদি আপনার মোটরসাইকেলের ক্ষতি হয় তাহলে আফসোসের সীমা থাকে না। এ কারণেই আপনার মোটরসাইকেলের জন্য ইন্স্যুরেন্স করা প্রয়োজন। দুর্ঘটনাজনিত কারণে আপনার মোটরসাইকেলের কোন ক্ষতি হলে ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি আপনার মোটরসাইকেল সারানোর সমস্ত খরচ বহন করবে। যদি আপনার মোটরসাইকেলটি একটি বৈধ ইন্স্যুরেন্স কোম্পানিতে ইন্স্যুরেন্স করা থাকে। এজন্য আপনাকে একটি বাৎসরিক ফি জমা দিতে হবে। এর বিনিময়ে দুর্ঘটনাজনিত কারনে আপনার মোটরসাইকেলের বড় ধরণের ক্ষতি হলেও আপনাকে একটি টাকাও খরচ করতে হবে না।

সরকারিভাবে সাধারণ বীমা কর্পোরেশন মোটরসাইকেলের ইন্স্যুরেন্স প্রদান করে থাকে। এছাড়াও কিছু বেসরকারি ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি রয়েছে যারা এই বীমা সুবিধা দিয়ে থাকেন। সাধারণ বীমা কর্পোরেশন একক রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন প্রতিষ্ঠান হিসেবে বীমা কর্পোরেশন আইনের অধীনে ১৪ মে, ১৯৭৩ সালে প্রতিষ্ঠা লাভ করে। এটি অর্থ মন্ত্রণালয়ের অধীনে পরিচালিত একটি প্রতিষ্ঠান। ইন্স্যুরেন্স সেবা পাওয়ার জন্য প্রথমে আপনাকে আপনার মোটরসাইকেলের জন্য বীমা করতে হবে। এজন্য সাধারণ বীমা কর্পোরেশন কার্যালয় কিংবা নিম্নোক্ত লিংক থেকে আবেদনপত্র সংগ্রহ করতে হবে। আবেদনপত্র সঠিকভাবে পুরণ করে সংশ্লিষ্ট কার্যালয়ে জমা দেয়ার পর সাধারণ বীমা কর্পোরেশন কর্তৃপক্ষ আপনার কাগজপত্র যাচাই বাছাই করে বীমার জন্য অনুমোদন প্রদান করবেন।

এ বীমার অন্যান্য সুবিধাসমূহ

  • কর্মরত ড্রাইভার ব্যতীত বীমাকারী বা অন্য কোন পরিচিত প্যাসেঞ্জারকে দুর্ঘটনাজনিত ক্ষতিপূরণ প্রদান, যাদের বয়স ১৬ থেকে ৬৫ বছরের মধ্যে
  • বীমাকারী ও কর্মরত ড্রাইভার ব্যতীত দ্বিতীয় কোন অপরিচিত প্যাসেঞ্জারকে দুর্ঘটনাজনিত ক্ষতিপূরণ প্রদান, যাদের বয়স ১৬ থেকে ৬৫ বছরের মধ্যে
  • Workmen’s compensation act 1923, Fatal accident act 1855 ও অন্যান্য সাধারণ আইনানুযায়ী বীমাকারীর অধীনস্ত ব্যক্তিকে ( যিনি মোটরসাইকেলের দেখাশোনা বা পরিচর্যার সাথে কোনভাবে যুক্ত) দুর্ঘটনাজনিত ক্ষতিপূরণ প্রদান

সীমাবদ্ধতাঃ নির্দিষ্ট কিছু কারণে বীমা প্রযোজ্য হয় না। এগুলো হলঃ

  • হরতাল, ধর্মঘট বা সন্ত্রাসী কর্মকান্ডে ক্ষতিগ্রস্থ হলে
  • ভূমিকম্পের কারণে ক্ষতিগ্রস্থ হলে
  • বন্যা, টাইফুন, ঘুর্নিঝড়, জ্বলোচ্ছাস, শিলাবৃষ্টি, প্রবলঝড় ও তুষারপাত প্রভৃতি কারণে যানবাহনের ক্ষতি হলে

বিস্তারিত জানতে ভিজিট করুনঃ   http://www.sbc.gov.bd/

অথবা, আপনার নিকটস্থ সাধারণ বীমা কার্যালয়ে যোগাযোগ করুন।

সংযুক্তিঃ   মোটরসাইকেলের জন্য ইন্স্যুরেন্স এর আবেদনপত্র

বাইকের ইন্সুরেন্স কিভাবে করবো ?

বাইকের ইন্সুরেন্স করার জন্য ইন্সুরেন্স অফিসে যেতে হবে ।  সেখানে যাওয়ার সময় আপনার সাথে নিতে হবে বাইকের কাগজপত্র ।যদি ইন্সুরেন্স অফিস খুজেঁ না পান তাহলে বাইক বিক্রয় প্রতিষ্ঠানে যান । সেখান থেকে বাইকের ইন্সুরেন্স করতে পারবেন ।

মোটর যান বিমার আওতাধীন কি কি ?

মোটর যান বিমা সম্পূর্ণ ক্ষতিপূরণ সুবিধার সাথে বর্তমান, যা আপনাকে দাঙ্গা , অগ্নিকান্ড, চুরি , বিস্ফোরণ, ধর্মঘট, আতঙ্কবাদী কার্যকলাপ এবং ক্রূর কৃতকর্মের বিরুদ্ধে সুরক্ষা প্রদান করে। এই মোটর যান বিমাটি আপনাকে ভূমিকম্প, ঘূর্ণবাত , বন্যা , সুনামি ইত্যাদি দৈবিক ঘটনার হাত থেকেও সুরক্ষা প্রদান করে।

এগুলি ছাড়াও, (গাড়ি চালানোর সময়) বিভিন্য রকম সংকটপূর্ণ পরিস্থিতি যেমন অভ্যন্তরীণ ভাঙ্গন , ব্যাটারি ডিসচার্জ , টায়ার ফাটা , চাবি নিখোঁজ হওয়া ইত্যাদির ক্ষেত্রেও অতিরিক্ত সুবিধা প্রদান করে। আমাদের অনলাইন যানবাহন বিমাগুলির অধীন প্রতিটি প্রকল্প বিনিয়োগকারীবৃন্দকে দূরস্থিত নেটওয়ার্ক দ্বারা পরিষেবা প্রদান করার জন্য তৈরি ।

শেষ কথা 

বন্ধুরা যেকোনো জিনিসের এখন বীমা করানো উচিত বা মারা সবাই বীমা করেন থাকি। বিশেষ করে আমাদের যানবাহনের জন্য বীমা করেই বাইরে বেরোতে হবে। সরকারের নিয়মানুসারে আপনার কাছে যদি কোনোরকম বীমা না থাকে তাহলে আপনাকে প্রতি নিয়ত ফাইন দিতে হবে। তারপর আপনি রাস্তায় যখন আপনার বাহনে করে এদিকে সেদিকে যাবেন তখন আপনার বিপদ আসতেই পারে, তাতে আপনার ক্ষতি বা পানির গাড়ির ক্ষতি হতেই পারে। সেক্ষেত্রে আপনার যাতে কোনো সমস্যায় না পড়তে হয় তার জন্য আপনাকে বীমা করতেই হবে। বোমার জন্য আরও অনেক কারণ আছে ,সোজা কথায় বলতে গেলে আপনার সুবোধের জন্য,আপনার লেভার জন্য,ও সরকারের নিয়ম মেনে গাড়ি চালানোর জন্য আপনাকে বীমা অর্থাৎ ইন্সুরেন্স করাতেই হবে। ধন্যবাদ।



Leave A Reply

Your email address will not be published.