আয়ূষ্মান যোজনা কি একবার জেনে নিন

0

২০১৮-১৯ সালের বাজেট পেশের দিন আয়ুষ্মান স্বাস্থ্য বীমা প্রকল্পের ঘোষণা করে হইচই ফেলে দিয়েছিলেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী অরুণ জেটলি। এদিন স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষ্যে লালকেল্লায় দাঁড়িয়ে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী জানিয়ে দিলেন আগামী ২৫ সেপ্টেম্বর দীন দয়াল উপাধ্যায়ের জন্মদিবসের দিন থেকে এই প্রকল্প পথ চলা শুরু করবে। অন্তত চল্লিশ শতাংশ ভারতবাসীর কাছে এই প্রকল্পের সুবিধা অনেক বড় আশীর্বাদ হয়ে দেখা দিতে পারে। একনজরে জেনে নেওয়া যাক প্রকল্প সম্পর্কে।

আয়ুষ্মান ভারত যোজনা কী

আয়ুষ্মান ভারত স্বাস্থ্য যোজনায় ১০ কোটি পরিবারের প্রায় ৫০ কোটি মানুষকে স্বাস্থ্যবীমার সুবিধা দেওয়া হবে। এতে ৫ লক্ষ টাকার স্বাস্থ্যবীমার সুবিধা পাবে প্রতিটি পরিবার। একবার চালু হলে এটাই হবে পৃথিবীর সর্ববৃহত স্বাস্থ্য বীমা প্রকল্প। এর মাধ্যমে স্বাস্থ্যক্ষেত্রে খরচে কোনও টাকা দিতে হবে না। সরকারি হাসপাতালে তো বটেই, বেসরকারি হাসপাতালেও এই সুবিধা পাওয়া যাবে। হাসপাতালে ভর্তির আগের ও পরের খরচও এতে ধরা থাকবে।

কারা সুবিধা পাবেন ?

আর্থ-সামাজিকভাবে পিছিয়ে পড়া শ্রেণি এই প্রকল্পের সুবিধা পাবেন। তাদের আলাদা ডেটাবেস তৈরি হবে। প্রায় ১০ কোটি পরিবারের প্রায় ৫০ কোটি মানুষ এই সুবিধা পাবেন। মূল উদ্দেশ্যে, কোনও পিছিয়ে পড়া পরিবার যেন এই প্রকল্পের সুবিধা থেকে বঞ্চিত না হয়। এক্ষেত্রে পরিবারের সদস্য সংখ্যার ও বয়সের কোনও লাগাম নেই। ভবিষ্যতে আয়ুষ্মান ভারত প্রকল্পে মধ্যবিত্ত ও উচ্চ মধ্যবিত্তদেরও নিয়ে আসা ভাবনা রয়েছে বলে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী জানিয়েছেন।

কে টাকা দেবে আয়ুষ্মান ভারতের ?

এই প্রকল্পের টাকা দেবে কেন্দ্র ও রাজ্য সরকার মিলে। ৬০ ও ৪০ শতাংশ করে যথাক্রমে। উত্তর-পূর্ব ভারত ও হিমালয়ের কোলের রাজ্যগুলির জন্য আলাদা ব্যবস্থা রয়েছে। উত্তর-পূর্ব ভারত, হিমাচলপ্রদেশ, উত্তরাখণ্ড ও জম্মু ও কাশ্মীরের জন্য সরকার ৯০ শতাংশ খরচ বহন করবে। এছাড়া কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলের জন্য কেন্দ্র পুরো টাকা দেবে।

আপনি প্রকল্পের সুবিধা পাবেন কিনা কীভাবে বুঝবেন ?

আপনি বা আপনার পরিবার এই প্রকল্পের সুবিধা পাবেন কিনা তা যাচাই করতে হলে https://abnhpm.gov.in ওয়েবসাইটে লগ ইন করে তথ্য সংগ্রহ করতে হবে। কারা যোগ্য তার তালিকা ডাউনলোড করতে হবে। লোকেশন সিলেক্ট করতে হবে। তারপর লিস্ট ডাউনলোড করতে হবে।

প্রধানমন্ত্রীর আয়ুষ্মান ভারত প্রকল্প প্রত্যাখান করেছে এই 5 রাজ্য

তেলাঙ্গানা, ওডিশা, দিল্লি, কেরালা ও পঞ্জাব – এই পাঁচ রাজ্য প্রত্যাখ্যান করল প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির আয়ুষ্মান ভারত স্বাস্থ্য প্রকল্প। এই রাজ্যগুলির তরফে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে যতক্ষণ না কেন্দ্র তাদের নির্দিষ্ট কিছু বিষয় কার্যকর করবে, ততক্ষণ তারাও এই প্রকল্প মানতে নারাজ।

যদিও এই ব্যাপারটি নিয়ে কথা বলতে গিয়ে কড়া প্রতিক্রিয়াই দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। গত শনিবার ওড়িশার একটি জনসভায় বক্তৃতা দিতে গিয়ে মুখ্যমন্ত্রী নবীন পটনায়ককে তুলোধনা করেন তিনি। তিনি বলেন, “আয়ুষ্মান ভারত প্রকল্পের গুরুত্ব নিয়ে প্রত্যেকে ওয়াকিবহাল। কিন্তু নবীন বাবু তো সে কথা কিছুতেই বুঝতে চান না। ওড়িশা সরকারের উচিত নিজে থেকে এগিয়ে এসে এই প্রকল্পে যোগদান করা”। ওড়িশার বিধানসভা নির্বাচনের প্রচারে গিয়ে এই কথা বলেন মোদী।

মোদীর কথার জবাবে নবীন পটনায়ক বলেন, ওড়িশাতে অনেকদিন ধরেই রয়েছে বিজু স্বাস্থ্য কল্যাণ যোজনা। যার আওতায় আয়ুষ্মান ভারত প্রকল্পের থেকে বেশি লোক রয়েছে শুধু নয়, এমনকি, অর্থটাও সেখানে অনেক বেশি। আয়ুষ্মান ভারতের ক্ষেত্রে দেওয়া হবে 5 লক্ষ টাকা। বিজু স্বাস্থ্য যোজনা প্রকল্পে দেওয়া হয় 7 লক্ষ টাকা করে।

 শেষ কথা 

পৃথিবীর বৃহত্তম সরকারি স্বাস্থ্য প্রকল্প হিসেবে ডাকা হচ্ছে যাকে, সেই আয়ুষ্মান ভারত প্রকল্পের সুবিধা পেতে পারেন দেশে প্রায় 50 কোটি নাগরিক। একত্রিশটি রাজ্য এবং কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলগুলি ইতিমধ্যেই নিজেদের এই প্রকল্পের আওতায় নিয়ে এসেছে। আর্থিকভাবে পিছিয়ে পড়া অন্তত দশ কোটি পরিবারকে সাহায্য করা যাবে এই স্বাস্থ্য প্রকল্পের মাধ্যমে। পরিবারপিছু পাঁচ লক্ষ টাকা করে দিয়ে।



Leave A Reply

Your email address will not be published.