‘দিল সে’- একটি কালজয়ী গল্পের ২০ বছর।

পাহাড়ি রাস্তা, তার বুক চিরে একটা ট্রেন চলেছে, আর তার ওপরে একটা গালে টোল ফেলা মিষ্টি মতন ছেলে আর একটা দস্যি মেয়ে। তার সঙ্গে সঙ্গে এক পাগল করা তাল তার সাথে সাথে গানের কথা।  নেশা  ধরিয়ে দেয়া তালে নেচে চলেছে ছেলেটি আর মেয়েটি, পাহাড়ের মাঝখানে, ট্রেনের ওপরে চল ছাঁইয়া ছাঁইয়া, ছাঁইয়া ছাঁইয়া। সিনেমা, মনি রত্নমের পরিচালনায়। ১৯৯৮ সালে মুক্তি প্রাপ্ত কালজয়ী সিনেমা “দিল সে”। মনীষা কৈরালা , শাহরুখ খান এর অভিনয়, এ আর রহমানের গান, অসাধারন সমস্ত পাহাড়ি জায়গায় শুটিং; সব মিলিয়ে একটা মায়াবী সেট।  আর তার সাথে একটা গল্প, যেরম গল্প আগে কেউ কোনোদিন ভারতীয় সিনেমার পর্দায় দেখেনি।ভাবতে পারেনি এমন একটা প্রেমের অস্তিত্বও থাকতে পারে, ও তার সাথে এমন সুন্দর একটা সিনেমা ও বানানো যেতে পারে, যা দর্শলের ভালো লাগবে।  আসলে ভুল তা তো দর্শকদের না, তাদের যেমনটা দেখানো হয় তারা দেখে। ভালো হলে তো অবশ্যই দেখবে।


অমর একজন সাংবাদিক, অল ইন্ডিয়া রেডিওর সঙ্গে যুক্ত।  তাদের হয়ে সে যাচ্ছে আসাম সেখানকার উৎসব  করার জন্য, যাওয়ার পথে এক অদ্ভুত অবস্থায় তার দেখা হয় একটি মেয়ের সঙ্গে, অদ্ভুত মায়াবী এক মেয়ে।  কথা বলেনা, কথা শোনেনা, এমন এক মানুষ যে খুব কাছে আছে কিন্তু তাকে ছোঁয়া যায়না, যেন সামনে থেকেও বেশ অনেকটা দুরে। আর সারা সফর জুড়ে নানান সময়ে নানান অভিজ্ঞতার সাথে সাথে চলতে থাকে এই রহস্যময়ীর সদাথে অদ্ভুত ভাবে দেখা হওয়া এবং তার পালিয়ে যাওয়া। শেষ পর্যন্ত সেই রহস্যের উদ্ঘাটন হয়, এবং এমন ভাবে হয় যা কেউ ভাবতেই পারেনি।  এক অসাম্য প্রেম ও তার এক অসামান্য সমাপ্তির কথা। এই সিনেমাটি রাজনৈতিক ওঠাপড়ার সাথে প্রেমকে মিশিয়ে তৈরী করেছিল এক অসামান্য ছবি যা কখনো পুরোনো হয়ে যায় না. দেখিয়েছে সন্ত্রাসবাদ কিভাবে সাধারণ মানুষের জীবনও ছিন্ন-ভিন্ন করে দিতে পারে।  তাই হয় সত্যি  জীবনে,একেবারে সত্যিজীবন থেকে নেয়া এই গল্প ভারতীয় সিনেমার জগতে এক অনন্য উদাহরণ।

গত ২১শে অগাস্ট এই সিনেমার মুক্তি ঘটে।  এই সিনেমার তিন অভিনেত্রী – মনীষা কৈরালা, প্রীতি জিন্টা ও মালাইকা অরোরা।  এই সিনেমা তাদের জীবনে সেরা অভিনয়গুলোর মধ্যে অন্যতম। প্রীতি জিন্টা এই সিনেমা দিয়েই তার অভিনয় জীবন শুরু করেন, খুব অল্প অংশ থাকলেও মনে দাগ কেটে যায় তার সৌন্দর্য্য সারল্য ও অভিনয়। তা ছাড়া ফারহা খানের নির্দেশনায় পরিবেশিত নাচ, ছাঁইয়া ছাঁইয়া এখনো অব্দি হিন্দি সিনেমার জগতে অন্যতম জনপ্রিয় একটি গান। এমন একটি অসাধারন সিনেমা তার মুকুটে আর এক পালক এ আর রহমান।  এই সিনেমার গান, ভারতীয় সিনেমায় গানের গুরত্ব কতটা সেটা আবার করে বুঝিয়ে দেয়। এই সিনেমার গাঙ্গুলি আজও আমাদের ভালোলাগাতে ব্যর্থ হয় না।

গত ২১ তারিখ এই সিনেমার মুক্তির ২০ বছর পার হল, আর এই আনন্দে ছবির নায়িকা মনীষা কৈরালা একটি টুইট করেন, এই স্মৃতি মেদুর সময়ের।  শাহরুখ খানেরও জীবনের অন্যতম সেরা অভিনয় গুলির মধ্যে একটি এই সিনেমাটি। দেখে নিন এই সিনেমা সম্পর্কে কি বললেন মনীষা কৈরালা –



Comments are closed.