Authentic Bengali Restaurant in Kolkata – কলকাতায় খাওয়া দাওয়া


5.  বিবেকানন্দ রোডের ফুচকা (Phuchka Stall)

বাঙালী জীবনে রবীন্দ্র নাথের পর আর যে জিনিসটি অবিচ্ছেদ্য তা হল ফুচকা। হ্যাঁ কলকাতা শহরে এমন মানুষ খুজে পাওয়া ভার যার ফুচকা বলতে জিভে জল আসেনা, আর বিবেকানন্দ রোডের ফুচকা হলে তো কথাই নেই। যেমন বড় সাইজ তেমনি স্বাদ, কোন দিক দিয়েই এই ‘জল-খাবার’ এর ধারে কাছে অন্য কেউ পৌঁছতে পারেনা। বিভিন্ন জায়গায় বিভিন্ন নাম- গোলগাপ্পা, পানিপুরি, আমাদের কলকাতায় ফুচকা, যাই নাম হোক না কেন স্বাদ সেই এক ই থাকে। ফলে আপনি দিল্লীর হন বা মুম্বাই এর ফুচকা আপনার কলকাতার ভ্রমণ সঙ্গী  অবশ্যই হবে।

6.  আরসালানের বিরিয়ানি (Arsalan)

মোগলাইরা চলে গেছে  অনেক দিন তবে বিরিয়ানি টা এখনো যায়নি। খাদ্যাভ্যাসের দিক থেকে কলকাতা বা বাঙালীরা আত্যন্ত খোলা মনের, ফলে ভারতের রাজনৈতিক চাপানউতোরের সাথে এখানকার খাওয়ার ধরন-ধারনও মিলে যায়। কলকাতার মানুষের বিরিয়ানিতাই এক আসম্ভব পছন্দের খাওয়ার। আর আরসালান হল বিরিয়ানি রাজ্যের অর্জুনবত। শুরুর থেকেই পার্ক সার্কাসের এই রেস্তোরাঁর বেশ নাম ডাক এর জিভে জল আনা বিরিয়ানির জন্য, নরম বিরিয়ানি মশলার গন্ধে মাখা ভাত, তার সাথে জুসি মাংস আর নরম আলু, সব মিলে আপনাকে দেবে জীবনের স্বাদ, এছাড়াও আছে বিভিন্ন মোঘলাই পরোটা, রায়তা, কাবাব, হালিম আরও আনেক কিছু। কলকাতা সফরের মাঝে ঢুঁ  মারা যেতেই পারে আরসালানে; একটা বিরিয়ানি আর ঠাণ্ডা কোক আপনার উৎসাহকে বেশ খানিকটা এগিয়ে দেবে।



Comments are closed.