কলকাতার সেরা 10 ষ্ট্রীট ফূড (Street Food)

যে কোন শহরের স্ট্রীট ফূড সেখানকার জীবনযাত্রার একটি বড় অংশ এবং সেই জায়গার খাদ্যাভ্যাসের একটা বড় উপাদান। কোন জায়গার সম্পর্কে জানতে হলে তার স্ট্রীট ফূড তাতে বেশ সাহায্য করে। আর আমাদের কলকাতার রাস্তাগুলি তো এমন সব খাওয়ারের আখড়া। যেদিকে যাবেন সেদিকেই চোখে একটা রোলের দোকান বা চাউ এর দোকান বা বিরিয়ানির দোকান; নিদেন পক্ষে একটা ঝালমুড়ির বা ফুচকার দোকান তো চোখে পড়বেই, এবং তাদের মধ্যে অনেকে বেশ বিখ্যাত ও পুরনো।  কলকাতার রাস্তায় হাটলে একটা আলাদা অনুভূতি পাওয়া যায়, এটা যে অনুভব করেছে সে জানে; আর তার সাথে সাথে এও জানে যে কলকাতার রাস্তায় হাটা মানে শুধুই হাওয়া খাওয়া নয় তার সাথে সাথে আছে মুখরোচক কিছু। এমন কিছু যা আপনার এই সফর কে করে তুলবে আরও সুস্বাদু ও স্মরণীয়।  এমনই কিছু খাওয়ারের দোকানের ঠিকানা এখানে দেওয়া হল যা আপনার কলকাতা সফর কে করে তুলবে অনন্য।

কলকাতার সেরা ১০ রাস্তার খাওয়ার

কলকাতায় ছড়িয়ে থাকা বিভিন্ন রাস্তা ও বিভিন্ন গলির মধ্যে লুকিয়ে আছে শহরের সেরা কিছু খাওয়ারের জায়গা, সে তেলেভাজা হোক বা চাইনিস কলকাতার রাস্তায় আপনি পাবেন আপনার রস্নার পরিপুর্ণ তৃপ্তি। সেই কলকাতার ষ্ট্রীট ফুড বা রাস্তার খাওয়া দাওয়ার খোঁজ দেওয়া হল এই তালিকায়।

1. Kalika (কালিকা মুখরোচক তেলেভাজা, কলেজ ষ্ট্রীট)

 

A post shared by Srinjay Ray (@srinjayray) on

কলকাতার স্বাদ সঠিক অর্থে পেতে গেলে যেতে হবে উত্তর কলকাতা, এই কথার দ্বিরুক্তি কেউ করেনা। উত্তর কলকাতায় গেলে পাওয়া যায় বাঙালীর বাঙালিয়ানার স্বাদ-রং-গন্ধ। তাই উত্তর কলকাতার রাস্তার নানান দোকান এখানকার সবথেকে পুরনো দোকানগুলির মধ্যে কয়েকটি। এখানে এমন কিছু দোকান আছে যা ২০০ বছরেরও বেশি সময় ধরে আছে, এবং এই দোকানগুলির মধ্যে একটি হল কালীকা। বাঙালীর সন্ধ্যে মানে তেলেভাজা। তেলেভাজা ছাড়া সন্ধ্যের চায়ের আড্ডা খুব বিশেষ  শোনা যায় না। কলেজ ষ্ট্রীটের কালীকার তেলেভাজার তো কোন জবাব ই নেই। কালিকার দোকান সারা উত্তর কলকাতা তথা সমস্ত দক্ষিণ কলকাতায় বিখ্যাত, এর কাটলেট ও ফীশচপ একবার খেলে এখানে ফিরে আসতে হয় বারবার। সূর্য সেন ষ্ট্রীটের ওপরে একেবারে আড়ম্বরহীন এই দোকান একটি পুরনো বাড়ির বারান্দার ওপর তৈরি। কলকাতায় এলে আসতেই হবে কালীকায়।

  • কী খাবেন- ভেটকীর চপ, ডিমের ডেভীল, চিংড়ীর চপ, মোচার চপ।
  • সময়- বিকেল ৩টে থেকে সন্ধ্যে ৭টা।
  • জনমত- “কলকাতা এলে কালীকায় খাওয়া বাঞ্ছনীয়, যদি জানতে হয় কলকাতার সন্ধ্যের স্বাদ।”

2. Agarwal’s [আগরওয়ালস্ পাও ভাজী, গিরীশ পার্ক]

কলকাতার সবথেকে জনপ্রিয় ও ব্যাস্ত এলাকায় অবস্থিত আগরওয়ালস্ পাও ভাজী। কলকাতায় পাও ভাজীর ঠিকানার সংখ্যা খুব কম হলেও এর মান বেশ ভালো, মধ্য কলকাতায় অবস্থিত এই পাও ভাজীর দোকান কলকাতায় কম বয়সিদের মধ্যে বেশ বিখ্যাত। এদের নানান টপিং এর পাও কলকাতাবাসীর এক্সপেরিমেন্টাল জিভের জন্য বেশ জনপ্রিয়। অন্যান্য পাও এর দোকানের মত এখানেও পাওগুলি অর্ধেক বানানো থাকে এবং আপনার চাহিদার মত বিভিন্ন টপিং দিয়ে তারা বানিয়ে দেয়। পাও ভাজি মুম্বইএর বিখ্যাত হলেও কলকাতার এই দোকানের পাও ভাজি তার থেকে কোন অংশে কম না। যদিও এখানে বসার জায়গা নেই তাও কলকাতা বাসি এখানে খেতে বেশ পছন্দ করে। বসার জায়গা থাকলেও তা অত্যন্ত সিমিত, তাই এখানে যদি আপনি বসে খাওয়ার আশায় যান তবে আপনি আশাহত হবেন।

  • কি খাবেন- চীজ পাও ভাজি।
  • সময়- সকাল ১০টা থেকে রাত ১০টা।
  • জনমত- “বসে খাওয়ার ব্যাবস্থা না থাকলেও এখানকার পাওগুলি এতই সুস্বাদু যে এখানে বার বার ফিরে আসে কলকাতা বাসি।”
  • শাখা- ক্যামাক ষ্ট্রীট।

Comments are closed.