Best Chinese Restaurants in Kolkata – কলকাতার সেরা 10টি চাইনিস রেস্তোরাঁ

ভারতের সঙ্গে চীনের রাজনৈতিক ভাবে নানান মতবিরোধ থাকলেও, চীনে খাওয়ারের সঙ্গে ভারতবাসীর কোনোরকম মনমালিন্য নেই। কলকাতার মানুষের বাঙালী রান্নার পর যদি আর কোন ধরনের রান্না পছন্দ হয় তবে তা হল এই চীনে খাওয়ার। তাই কলকাতার চীনে পাড়া ছাড়াও আরও বিভিন্ন প্রান্তে ছড়িয়ে আছে চীনে রেস্তোরাঁ। আর প্রত্যেক বাঙালী এক বাক্যে স্বীকার করে চীনে খাওয়ারের প্রতি তাদের এই চিনচিনে দুর্বলতার কথা। দারুন স্বাদের মশলাদার মাংস বা গলার পক্ষে আরামদায়ক একেবারে মশলাহীন স্যুপ- যাই হোক না কেন, সবরকমই পাবেন এই রেস্তোরাঁর মেনুতে। কলকাতার সবথেকে পুরনো রেস্তোরাঁ গুলির মধ্যে অনেক গুলিই চাইনিস খাওায়ারের জন্য বিখ্যাত, যেখানে সারা বছরই থাকে প্রায় পুজো প্যান্ডেলের মত ভিড়, বহুক্ষন অপেক্ষা করেও এখানে খেতে রাজী কলকাতার মানুষ। আপনি যদি খোঁজে থাকেন এমন কোন জায়গার, আর যদি জানতে চান কোথায় গেলে আপনি পাবেন চীনে কলকাতার সেরা স্বাদ তবে দেখে নিন আমাদের বানানো এই সেরা চিনে রেস্তোরাঁর তালিকা যেখানে আমরা দিয়ে দিয়েছি কলকাতার সেরা দশটি চীনে রেস্তোরাঁর ঠিকানা।

Best Chinese Restaurants in Kolkata – কলকাতার সেরা 10টি চাইনিস রেস্তোরাঁ

কলকাতা আর চিনেদের ভাব বহু যুগের। কলকাতার চীনে পাড়ার নাম জানেনা এমন লোক এ বঙ্গ দেশে কমই আছেন। তাই চীনে খাওয়ারও বেশ বিখ্যাত। কলকাতার মানুষ বাঙালী খাওয়ারের মতই প্রায় চীনে খাওয়ার পছন্দ করেন, এখানে দেওয়া হল কলকাতার সেরা ১০ টি চীনে রেস্তোরাঁর খোঁজ, যেখানে গেলে আপনি পাবেন চীনে খাওয়ারের স্বাদ

1. MAIN LAND CHINA (মেনল্যান্ড চায়না, বালিগঞ্জ)

A post shared by Mainland China (@mainlandchinaindia) on

কলকাতার চীনে রেস্তোরাঁর তালিকায় মেন ল্যান্ড চায়না যে থাকবে সবার ওপরে তা বলাই বাহুল্য। বেশ লম্বা তালিকার মেনু ও এক্কেবারে খাঁটি চীনে স্বাদের নানান পদ – দুয়ে মিলে এই রেস্তোরাঁকে করে তুলেছে কলকাতার মানুষের ১ নম্বর পছন্দ। এছারা এখানকার অসাধারণ অন্দরসজ্জা ও পরিবেশনে চীনে ছাপ আপনাকে এনে দেবে ভিনদেশি আবহে। মেন ল্যান্ড চায়নার বিরাট ও আরামদায়ক বসার ব্যাবস্থা এই রেস্তোরাঁকে ফ্যামিলি রেস্তোরাঁ হিসেবে বেশ জনপ্রিয় করে তুলেছে। কলকাতাবাসীর কাছে চিনে খাওয়ার মানেই মেনল্যান্ড চায়না, তাই আপনি যদি কলকাতায় থাকেন আর চেখে দেখতে চান এখানকার বিখ্যাত চিনে পদ তবে মেন ল্যান্ড চায়না হল আপনার জন্য আদর্শ গন্তব্য।

  • জনমত- “আপনি যদি আপনার পরিবারের সাথে কাটাতে চান একটু ভালো সময় আর খেতে চান খাঁটি চিনে খাওয়ার তবে মেনল্যান্ড চায়না আপনার জন্য আদর্শ।“
  • “এখানকার মেনুর বিভিন্নতা, আরামদায়ক বসার ব্যাবস্থা ও আমিষ নিরামিষ দুরকমের চিনে খাওয়ার পেতে হলে চলে আসুন এখানে।“
  • কি চেখে দেখবেন- সুশি, গোল্ডেন ফ্রায়েড প্রন, চিকেন সিউ মাই, চিকেন প্যান ফ্রায়েড নুডলস, ইউ ইয়াং স্পাইসি বারবিকিউ ফিশ।
  • এক্স ফ্যাক্টর- এখানকার খাঁটি চাইনিস ফ্লেভার ও চিনে ধাঁচের অন্দরসজ্জা।
  • শাখা- সিল্ভার স্প্রিং আরকেড, সাউথ সিটি মল, আভনি রিভার সাইড মল।

2. CALCUTTA BISTRO (ক্যালকাটা বিস্ত্রো, যাদবপুর)

কলকাতার চীনে রেস্তোরাঁর তালিকায় প্রথম সারিতে আসে ক্যালকাটা বিস্ত্রো। কলকাতায় চিনে রেস্তোরাঁ গুলির মধ্যে এখানকার খরচ তুলনামূলক ভাবে অনেক কম, আর তার সাথে এখানকার খাওয়ারের স্বাদও অতুলনীয়। দক্ষিন কলকাতার সবথেকে জনবহুল ও ব্যাস্ত এলাকায় থাকার ফলে এর জনপ্রিয়তাও বেশ। কলকাতার বিভিন্ন প্রান্ত থেকে মানুষ এখানে আসেন এদের নির্ভেজাল চীনে খাওয়ার চেখে দেখতে, তার সাথে এখানকার কর্মচারীদের ব্যাবহার ও সার্ভিস দারুন, সব মিলিয়ে ক্যালকাটা বিস্ত্রোয় একবার এলে ফিরে আসতেই হবে আবার। কলকাতার চিনে রেস্তোরাঁর ম্যাপে উজ্জল এই গন্তব্যে আপনাকে যেতেই হবে যদি আপনি হন চীনে রান্নার ভক্ত।

  • জনমত- “এত বছর ধরে এখানে খাচ্ছি কখনও হতাশ হইনি, খারাপও লাগেনি।“
  • “ফ্যামিলি রেস্তোরাঁ হিসেবে খুব ভালো, তার সাথে অসাধারণ রান্না একে আমার সেরা পছন্দ করে তুলেছে।“
  • কি চেখে দেখবেন- কুং পাও চিকেন, চিলি গার্লিক নুডলস।
  • এক্স ফ্যাক্টর- এখানকার কম দামের জন্য কমবয়সীদের পছন্দের জায়গা।
  • শাখা- নেই।


Comments are closed.